ইমেইল কাকে বলে? এর ব্যবহার ও সুবিধা

0
262
ইমেইল কাকে বলে? এর ব্যবহার ও সুবিধা
ইমেইল কাকে বলে? এর ব্যবহার ও সুবিধা

ইমেইল কাকে বলে – বর্তমানের আধুনিক প্রযুক্তি আমাদের দৈন্দিন জীবনে চলার পথ অনেকটা সহজ করে দিয়েছে। আর প্রযুক্তির এই যুগে ইমেইল শব্দটি শুনেনি এমন মানুষ নেই বললে চলে।

তাছাড়া, এখনো যারা জানেন না ইমেইল কি বা ইমেইল মানে কি? আজকের এই আর্টিকেলটি তাদের জন্য। এছাড়াও আমি আপনাদের আরো বলবো ইমেইল কিভাবে কাজ করে এবং ইমেইল এর সুবিধা গুলো সম্পর্কে।

ইমেইল কাকে বলে? 

ইমেইল অর্থ হলো ইলেক্ট্রনিক মেইল (election mail). এই ইমেইল এর মাধ্যমে আমরা দেশ বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় মূহুর্তে লেখা, ছবি, ডকুমেন্টস যেকোনো মেইল ঠিকানাতে  পাঠাতে পারি।

আপনার যদি মেইল এড্রেস থাকে, তাহালে আপনার একটি মেইল বক্স থাকবে। আপনার ঠিকানাতে যদি কেউ মেইল পাঠিয়ে থাকে, তাহালে এই বক্সে জমা হবে। আপনি মেইল বক্স থেকে মেইল গুলো যখন খুশি পড়তে পারবেন। 

এই ইলেক্ট্রনিক মেইল সেবা ব্যবহার করার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে স্মার্টফোন, কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট কানেকশন। এটা আপনারা সম্পর্ন ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন, মানে কোনো টাকা খরচ হবে না।

বর্তমানে যোগাযোগ করার একটা সাধারণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে ইমেইল। আপনার পরিচিত কারও যদি ইমেইল এড্রেস থাকে, তাহালে তার কাছে আপনি email পাঠাতে পারবেন।

আপনার হাতে যে স্মার্টফোন রয়েছে সেটাই মাধ্যমে আপনি পাঠাতে এবং পড়তে পারবেন। শুধু লেখা না এর মাধ্যমে ছবি, ফাইল, ডকুমেন্টস, ভিডিও গুলো পাঠাতে পারবেন।

আপনারা রাত দিন ২৪ ঘন্টা ইমেইল পড়তে এবং পাঠাতে পারবেন। তাছাড়া, ইন্টারনেটের শতকরা ৯৫% কাজে ইমেইল ব্যবহার করা হয়। আপনি যদি কোনো ব্যবসা করতে চান সেক্ষেত্রে আপনার যোগাযোগের প্রধান মাধ্যম হবে ইমেইল।

ইমেইলের মাধ্যমে বিশ্বের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে অত্যন্ত দ্রুত গতিতে যোগাযোগ করতে পারবেন। একটি মেইল সেন্ড হতে মাত্র কয়েক সেকেন্ড সময় নেয়। 

আশাকরি, বুঝতে পারছেন ইমেইল কাকে বলে বা ইমেইল (email) কিইমেইল খোলার নিয়ম আমি আমার এই ব্লগে আগে বলেছি। আপনারা সেই আর্টিকেলটি পড়ুন।

ইমেইল এর ব্যবহার

বর্তমান যুগকে বলা হয় ইন্টারনেটের যুগ। আর ইন্টারনেটের এই যুগকে বলা হয় ভার্চুয়াল জগত। এই ভর্চুয়াল জগতে ইমেইল এর ব্যবহার অনেক ক্ষেত্রে রয়েছে। নিচে ইমেইল এর ব্যবহার উল্লেখ করেছি,

  • আপনি যদি কারও সাথে যোগাযোগ করতে চান, তাহালে ইমেইল ব্যবহার করতে পারবেন। 
  • কারও কাছে টেক্সট, ছবি, ভিডিও, ফাইল, ডকুমেন্টস পাঠাতে ইমেইল ব্যবহার করুন।
  • আপনি যদি নতুন একটি স্মার্টফোন কিনেন, সেক্ষেত্রে google plays tore থেকে অ্যাপ ডাউনলোড করতে ইমেইল ব্যবহার করতে হবে।
  • সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট গুলো নিরাপদ বা সুরক্ষিত রাখার জন্য ইমেইল যুক্ত করুন।
  • আপনি যদি ইউটিউব চ্যানেল ব্যবহার বা খুলতে চান তাহালে অবশ্যই মেইল ব্যবহার করতে হবে।
  • আপনার মূল্যবান ডকুমেন্ট গুলো গুগল ড্রইভে সংরক্ষিত করে রাখার জন্য gmail এর মেইল ব্যবহার করতে হবে। google drive এ আপনি ১৫ GB পর্যন্ত জায়গা পাবেন।
  • আপনি যদি একজন ফ্রিল্যান্সার হয়ে আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করতে চাই, তাহালে ইমেইল প্রয়োজন হবে।
  • আপনি যদি একটি ফ্রি ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করতে চান তাহালে ইমেইলের প্রয়োজন হবে।

আশাকরি, উপর থেকে ইমেইল এর ব্যবহার সম্পর্কে জানতে পারছেন।

ইমেইল এর সুবিধা

ইমেইল ব্যবহার করার অনেক গুলো সুবিধা রয়েছে। এর মধ্যে থেকে কয়েকটি সুবিধা নিচে উল্লেখ করেছি,

  • সহজে ব্যবহার করা যায়। 
  • খুব দ্রুত বিশ্বের যেকোনো স্থানে পাঠানো যায়।
  • ইমেইল এর মাধ্যমে কম খরচে যেকোনো প্রডাক্টের মার্কেটিং করা যায়।
  • একসাথে অনেকের কাছে মেইল পাঠানো যায়। 
  • এর মাধ্যমে টেক্সট, ভিডিও, অডিও, ফাইল, ডকুমেন্টস ইত্যাদি পাঠানো যায়।
  • ইন্টারনেটে যেকোনো একাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে এর ব্যবহার অবশ্যই।

ইমেইল পাঠানোর নিয়ম

আজকে আমরা ইমেইল পাঠানোর নিয়ম দুই ভাবে জানবো। প্রথম জানবো স্মার্টফোন দিয়ে কিভাবে email পাঠাতে হয়। এবং তারপর জানবো কম্পিউটার দিয়ে কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়। তাহালে চলুন নিচে জেনে নেয়,

মোবাইলে কিভাবে ইমেইল পাঠাতে হয়

মোবাইল দিয়ে ইমেইল পাঠানোর নিয়ম অনেক সহজ। এটা জানার জন্য নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুন।

ধাপ -১

আপনার মোবাইলে যদি Gmail app না থাকে তাহালে google play store থেকে ডাউনলোড করে ইনস্টল করে অ্যাপটি ওপেন করুন। বর্তমানের স্মার্টফোন গুলোতে জিমেইল অ্যাপ থাকে। 

ধাপ – ২

জিমেইল অ্যাপ ওপেন করুন
জিমেইল অ্যাপ ওপেন করুন

Gmail app ওপেন করার পরে নিচে একটি পেন্সিল আইকন দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লিক করুন। উপরের ছবিতে যেমনটা আপনারা দেখতে পাচ্ছেন।

ধাপ -৩ 

এখানে ইমেইল পাঠানোর সকল প্রক্রিয়া গুলো দেখতে পাবেন। যেমন,

ইমেইল পাঠানোর নিয়ম
ইমেইল পাঠানোর নিয়ম

From : এখানে আপনার ইমেইল এড্রেস দেওয়া থাকবে। যাকে আপনি মেইল পাঠাবেন সে আপনার মেইল এড্রেস দেখতে পাবে।

To : এখানে আপনি যাকে মেইল পাঠাবেন তার ইমেইল এড্রেস লিখতে হবে।

Subject : এখানে মেইলের বিষয়ে সংক্ষিপ্ত কিছু লিখতে হবে। যাতে প্রাপক সহজে বুঝতে মেইলটি কোন বিষয়ের উপর। 

Compose : এই অপশনে আপনাকে সম্পর্ন মেইল  বিস্তারিত ভাবে লিখে দিতে হবে। আর আপনি যদি মেইলে টেক্সট এর সাথে কোনো ছবি, ভিডিও, অডিও, ফাইল, ডকুমেন্টস পাঠাতে চান।

তাহালে, উপরে ৪ নম্বর অপশনে ক্লিক করে “Attach file” ক্লিক করলে ফোনের মেমোরিতে থাকা সকল ছবি, ভিডিও, অডিও, ডকুমেন্টস গুলো দেখতে পাবেন। সেখান থেকে সিলেক্ট করে ৫ নম্বর অপশনে তীর চিহ্নতে ক্লিক করলে মেইল সেন্ড হয়ে যাবে।

আশাকরি, সহজে বুঝতে পারছেন কিভাবে মোবাইলে ইমেইল পাঠাতে হয়। 

কম্পিউটারে ইমেইল পাঠানোর নিয়ম

কম্পিউটার থেকে ইমেইল পাঠানোর নিয়ম জানতে নিচের ধাপ গুলো অনুসরণ করুন।

ধাপ -১

আপনার কম্পিউটার থেকে যেকোনো একটি Browser ওপেন করে gmail.com এ গিয়ে email এবং Password দিয়ে Login করুন।

ধাপ – ২

ইমেইল ড্যাশবোর্ড
ইমেইল ড্যাশবোর্ড

লগইন করার পর আপনি জিমেইল এর ড্যাশবোর্ড দেখতে পাবেন। উপরে বাম পাশে “Compose” অপশনে ক্লিক করুন।

ধাপ – ৩

“Compose” অপশনে ক্লিক করার পরে আপনি মেইল পাঠানোর প্রক্রিয়া গুলো দেখতে পাবেন। যেমন,

মেইল পাঠানোর নিয়ম
মেইল পাঠানোর নিয়ম

To : এখানে আপনি যার কাছে ইমেইল পাঠাবেন তার মেইল এড্রেস টাইপ করুন।

Subject : মেইলের বিষয়ে সংক্ষিপ্ত কিছু লিখতে হবে, যাতে গ্রগকগণ পড়ে সম্পর্ন মেইলের বিষয়টি বুঝতে পারে কি বিষয় লেখা হয়েছে।

Big box : subject এর নিচে বড় একটি বক্স দেখতে পাবেন। সেখানে সম্পর্ন মেইল বিস্তারিত ভাবে লিখতে হবে। মেইলের সাথে যদি ছবি, ফাইল, ডকুমেন্টস, ভিডিও, অডিও পাঠাতে চান তাহালে নিচের অপশন গুলো থেকে পাঠাতে পারবেন। 

সম্পর্ন মেইল লেখার পরে “send” অপশনে ক্লিক করে সহজে ইমেইল পাঠাতে পারবেন। আশাকরি, সহজে বুঝতে পারছেন কিভাবে কম্পিউটার দিয়ে ইমেইল পাঠাতে হয়।

আজকে আমরা কি জানলাম

তাহলে, বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম ইমেইল কাকে বলে বা ইমেইল কি এর সুবিধা, কিভাবে কাজ করে এবং ইমেইল পাঠানোর নিয়ম। আমার লেখা what is email in bangla আর্টিকেল কেমন লাগলো সেটা কমেন্টে জানাবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে