এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার 2022

আমরা অনেক সময় এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে চাই কিন্ত কিভাবে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবো তার নিয়ম জানি না।

তাই আজকের আর্টিকেল আমি আপনাকে বলবো কিভাবে রবি, জিবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক এবং টেলিটক সিমের ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে হয়।

বাংলাদেশর সিম কোম্পানি গুলো সকল অপারেটরে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার সুবিধা প্রদান করে থাকে। আপনার ফোনে যদি ব্যালেন্স থাকে তাহলে খুব সহজে বন্ধু বান্ধবের ফোনে সেটা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

তাহলে চলুন নিচে থেকে সকল সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম গুলো জেনে আসি। 

Table of Contents

এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার 2022

এক এক সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম এক এক রকম। তাই আলদা আলদা করে প্রত্যেক অপারেটর সিমের ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম নিচে উল্লেখ করা হয়েছে। 

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার | গ্রামীণফোন ব্যালেন্স ট্রান্সফার

ধাপ – ১: জিপি থেকে জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য প্রথমে আপনাকে রেজিষ্ট্রেশন করে নিতে হবে। যে নাম্বার থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন সেই নাম্বার থেকে রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য ডায়াল করুন *121*1500#.

এরপর 1 নাম্বার অপশনে থাকা registration অপশনটি সিলেক্ট করে send করুন। কিছু সময়ের মধ্যে আপনাকে ৬ ডিজিটের পিন নাম্বার সহ রেজিষ্ট্রেশন সম্পূর্ণ হয়েছে একটা মেসেজ পাবেন।

ধাপ – ২: রেজিষ্ট্রেশন করার পরে আবার জিপি টু জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য আবার একই  কোড *121*500# নাম্বারে ডায়াল করুন।

এরপর অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য 2 নাম্বার অপশন Transfer Balance এ send করুন। তাছাড়া সরাসরি এই অপশনে যেতে *121*1500*2# ডায়াল করুন।

এবার যে নাম্বারে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন সেই নাম্বার লিখে send করুন। কত টাকা ট্রান্সফার করতে চান তার পরিমান লিখুন।

মনে রাখবেন, সর্বনিন্ম ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্ছ ১০০ টাকা পর্যন্ত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে। এরপর রেজিষ্ট্রেশন করার সময় যে পিন নাম্বার পেয়েছেন সেই পিন নাম্বার দিয়ে send করুন।

আপনার ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা সফল ভাবে সম্পূর্ণ হয়েছে উভয় সিমে মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

GP ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার শর্তবলী

  • জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড *121*1500#।
  • ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য সিম ৬ মাসের পুরাতন হতে হবে।
  • শুধুমাত্র প্রিপ্রেইড গ্রাহকরা এই সুবিধা পাবেন। 
  • সর্বনিন্ম ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্ছ ১০০ টাকা পর্যন্ত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন। 
  • প্রত্যেক মাসে সর্বোচ্ছ ১০ বার ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন।
  • ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য কোনো চার্জ প্রযোজ্য নয়।

জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেলে কি করবেন?

আপনি যদি রেজিষ্ট্রেশন করার পরে জিপি ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে যান তাহলে আর “এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার” করতে পারবেন না।

এই সমস্যা সমাধান করার জন্য জিপি কাস্টমার কেয়ার 121 নাম্বারে কল করুন এবং তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করুন।

এজন্য কাস্টমার কেয়ার সেন্টার থেকে সিম যার নামে রেজিষ্ট্রেশন করা তার জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার জানতে চাইতে পারে। যদি জাতীয় পরিচয় নাম্বার সঠিক হয় তাহলে মেসেজের মাধ্যমে পিন নাম্বার পাঠিয়ে দিবে।

আবার, আপনার যদি কখনো মনে হয় পিন নাম্বার চেঞ্জ করবেন তাহলে *121*1500*3# ডায়াল করে বর্তমান পিন নাম্বার দিয়ে send করুন।

এর নতুন যে পিন নাম্বার দিতে চান সেটা লিখে send অপশনে ক্লিক করলে আপনার নতুন পিন সেটআপ হয়ে যাবে।

বাংলালিংক ব্যালেন্স ট্রান্সফার | বাংলালিংক থেকে বাংলালিংক ব্যালেন্স ট্রান্সফার

ধাপ – ১: বাংলালিংক সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য প্রথমে ডায়াল করুন *1000# নাম্বারে। এবার পিন কোড পেতে 1 অপশন টাইপ করে send করুন।

কিছু সময়ের মধ্যে পপ আপ নোটিফিকেশন এর মাধ্যমে আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে পিন কোড। এই পিন কোড মনে রাখবেন বা খাতায় লিখে রাখবেন।

ধাপ – ২: আবার *1000# ডায়াল করুন। এরপর Balance Transfer অপশনে যাওয়ার জন্য 1 লিখে send করুন। তারপর আপনার পিন কোড লিখে send করুন।

তারপর যে বাংলালিংক নাম্বারে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন সেই নাম্বার লিখে send করুন। এবার কত টাকা ট্রান্সফার করতে চান তার পরিমান লিখুন।

মনে রাখবেন, সর্বোচ্ছ ১০০ টাকা এবং সর্বোচ্ছ নিন্ম ১০ টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। আপনার  বাংলালিংক টু বাংলালিংক ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা সম্পূর্ণ হয়েছে। 

বাংলালিংক সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার শর্তবলী

  • বাংলালিংক ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড *1000#।
  • যে সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন তার বয়স কমপক্ষে ৩০ দিন হতে হবে। 
  • সিমে ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স নেওয়া থাকলে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন না।
  • এক বার ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার পরবর্তী ৩০ মিনিটের মধ্যে আর ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন না।
  • সর্বনিন্ম ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্ছ ১০০ টাকা পর্যন্ত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন। 
  • ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য কোনো চার্জ প্রযোজ্য নয়।
  • প্রত্যেক দিন ৫০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন।

বাংলালিংক ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেছি কি করবো?

আপনি কি বাংলালিংক ব্যালেন্স ট্রান্সফার পিন ভুলে গেছেন তাহলে চিন্তা করবেন না। কারণ খুব সহজে পিন রিসেট করতে পারবেন। 

এর জন্য প্রথমে ডায়াল করুন *1000# নাম্বারে। এরপর Pin Rest অপশন এর জন্য 3 লিখে send করুন। এবার সিম রেজিষ্ট্রেশন করা জাতীয় পরিচয় পত্রের শেষের ৪ ডিজিটের নাম্বার লিখে send করুন।

কিছু সময়ের মধ্যে মেসেজের মাধ্যমে আপনাকে নতুন পিন কোড দেওয়া হবে। এই পিন ব্যবহার করে আবার বাংলালিংক সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন।

রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার | রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফারের নিয়ম

রবি থেকে রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য ডায়াল করুন *140*6*2# নাম্বারে। এরপর কত টাকা ট্রান্সফার করতে চান তার পরিমান লিখে send করুন।

এরপরে আপনি যে নাম্বারে টাকা পাঠাতে চান সেই নাম্বার লিখে send করুন। আপনার ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে মেসেজের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

রবি মিসে মেসেজের মাধ্যমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম

এছাড়াও আপনি চাইলে মেসেজের মাধ্যমে রবি থেকে রবি সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন। এখানে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য আপনাকে কোনো ধরনের রেজিষ্ট্রেশন করার দরকার হবে না।

রবি সিম থেকে রবি সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন – 

Amount লিখে মেসেজ পাঠিয়ে দিন 1212018XXXXXXXX নাম্বারে। 

এখানে 018 এর পরে XXXXXXX বলতে বুঝানো হয়েছে যে রবি নাম্বারে টাকা পাঠাতে চান সেই নাম্বারকে। যেমন –

20 <> 121201837402706

ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা সম্পূর্ণ হয়ে গেলে আপনি একটি পিন কোড পাবেন। ভবিষ্যতে আবার যখন ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন তখন এই পিন কোড ব্যবহার করতে হবে। 

তাছাড়া, আপনি চাইলে এই পিন কোড বন্ধ করে দিতে পারবেন। এর জন্য OFF লিখে মেসেজ পাঠিয়ে দিন 1220 এই নাম্বারে।

রবি থেকে রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার শর্তবলী

  • রবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড *140*6*2#
  • সকল রবি প্রিপেইড এবং পোষ্ট পেইড উভয় গ্রহকগণ এই সুবিধা পাবেন। 
  • সর্বোচ্ছ ১০০ টাকা থেকে সর্বনিন্ম ৫ টাকা পর্যন্ত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে।
  • প্রত্যেক মাসে সর্বোচ্ছ ১০০০ টাকা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন। 
  • যে রবি সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন সেই সিমের বয়স কমপক্ষে ৩০ দিন হতে হবে। 
  • প্রত্যেক বার ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য ২ টাকা ভ্যাট চার্জ নেওয়া হবে।

এয়ারটেল ব্যালেন্স ট্রান্সফার | এয়ারটেল ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম 

ধাপ – ১: এয়ারটেল সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য মেসেজ অপশনে টাইপ করুন Pin এবং পাঠিয়ে দিন 1000 নাম্বারে। কিছু সময়ের মধ্যে ফিরতি মেসেজের মাধ্যমে আপনাকে একটি পিন কোড দেওয়া হবে।

ধাপ – ২: এবার আপনাকে মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করতে হবে BTR <> Pin <> Received Number <> Transfer Amount এবং পাঠিয়ে দিন 1000 নাম্বারে। 

যেমন – BTR 659374 01611317812 90.

এয়ারটেল থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার শর্তবলী

  • এয়ারটেল ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড নেই।
  • যে সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন তার বয়স কমপক্ষে ৩০ দিন হতে হবে। 
  • ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা উভয় সিম থেকে ২.৫৫ টাকা চার্জ প্রযোজ্য।
  • প্রত্যেক দিন সর্বনিম্ন ৫০০ টাকা থেকে সর্বোচ্ছ ১০০০ টাকা পর্যন্ত টাকা পাঠাতে পারবেন।
  • সর্বনিন্ম ৫ টাকা থেকে সর্বোচ্ছ ১০০ টাকা পর্যন্ত ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা যাবে।

টেলিটক ব্যালেন্স ট্রান্সফার

টেলিটক ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার নিয়ম অনেক সহজ। টেলিটক সিম থেকে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার জন্য পিন নাম্বার ব্যবহার করতে হবে। 

টেলিটক পিন নাম্বার হলো 1234 বা 12345678 ব্যবহার করতে পারেন। সবার জন্য এই একই পিন নাম্বার।

এবার “এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার” করার জন্য ডায়াল করতে হবে *124* Pin*Amount*Number#.

যেমন – *124*1234*40*01543974572#

টেলিটক ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার শর্তবলী

  • টেলিটক ব্যালেন্স ট্রান্সফার কোড *124#
  • প্রত্যেক দিন ১০ বার করে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন। 
  • প্রত্যেক দিন ৫০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত balance transfer করা যাবে।
  • প্রতিবার ১০ টাকা থেকে ৫০ টাকা transfer করা যাবে।
  • ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার ক্ষেত্রে কোনো চার্জ প্রযোজ্য নয়।

শেষ কথা 

আজকে আমরা জানলাম এক সিম থেকে অন্য সিমে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার উপায় সম্পর্কে। আপনারা যারা এক অপারেটর থেকে অন্য অপারেটর সিসে ব্যালেন্স ট্রান্সফার করার বিষয় জানতে চাচ্ছেন তাদের জন্য বলছি এমন সুবিধা এখানো চালু হয়নি।

তবে, ভবিষ্যতে যদি এমন সুবিধা চালু হয় তাহলে অবশ্যই এই ব্লগে আপডেট পেয়ে যাবেন ইনশাআল্লাহ। শেষে আর্টিকেলটি ভালো লাগলে বন্ধুদের জন্য ফেসবুকে শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap