ওয়েবসাইট কি? ওয়েবসাইট কত প্রকার ও কি কি?

0
234
ওয়েবসাইট কি? ওয়েবসাইট কত প্রকার ও কি কি?
ওয়েবসাইট কি? ওয়েবসাইট কত প্রকার ও কি কি?

আপনি জানেন, ওয়েবসাইট কি বা ওয়েবসাইট মানে কি, ওয়েবসাইট কাকে বলে এবং ওয়েবসাইট কত প্রকার ও কি কি? যেহেতু আপনি একজন ইন্টারনেট ইউজার সেহেতু আপনার মনে এই প্রশ্ন গুলো আসা স্বাভাবিক। (What is website)

বর্তমানে আমাদের সবার কাছে একটি স্মার্টফোন, কম্পিউটার বা ল্যাপটপ রয়েছে। এজন্য আমরা মোবাইলে বা কম্পিউটারে বিভিন্ন ধরনের কাজ করার জন্য অবশ্যই ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।

আমরা প্রায় সবাই ইন্টারনেট ব্যবহার করি অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের তথ্য খোঁজার জন্য। অনেক ক্ষেত্রে আবার আমরা, অনলাইনে গেম খেলা, অনলাইনে গান শোনা, অনলাইনে ফটো এডিটিং করা ইত্যাদি ছাড়াও আরো অনেক ধরনের কাজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে করে থাকি।

আর ইন্টারনেটের মাধ্যমে এই সকল কাজ গুলো করার জন্য অবশ্যই আপনাকে কোনো না কোনো ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে হয়। তাছাড়া, ইন্টারনেটে এই সকল বিভিন্ন তথ্য খোঁজার জন্য আরমা মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে জনপ্রিয় কিছু সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করি।

এই জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন গুলোর মধ্যে অন্যতম হলো, Google search এবং Yahoo search. আমরা সাধারণত এই দুইটা বেশি ব্যবহার করি। তবে, এছাড়াও আরো সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে। মনে রাখবেন, এই ধরনের সার্চ ইঞ্জিন গুলোও কিন্ত এক এক ধরনের ওয়েবসাইট।

তাছাড়া, আমরা যে তথ্য গুলো সার্চ ইঞ্জিনে খোঁজ করি এবং তারা যে তথ্য গুলো আমাদের সমাধান দেয়, সেই প্রতটি সমাধান কিন্ত আলদা আলদা ওয়েবসাইটের সাথে জড়িত।

আসলে ইন্টারনেটের কথা বললে অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট গুলোর প্রচুর ভূমিকা থাকে। এক্ষেত্রে বলা যায়, পুরো ইন্টারনেট আলদা আলদা ওয়েবসাইটের একটি সংগঠন। কিন্ত, আমাদের জানতে হবে ওয়েবসাইট কি বাংলা এবং ওয়েবসাইট এর প্রকারভেদ গুলো কি কি।

তাহালে, চলুন নিচে থেকে জেনে আসি Website কি? বা Website কাকে বলে এই ব্যাপারে বিস্তরিত ভাবে।

ওয়েবসাইট কি? (What is Website)

ওয়েবসাইট বা ওয়েব সাইট অথবা শুধুমাত্র সাইট হলো কোনো ওয়েব সার্ভারে রাখা ছবি, ওয়েব পেজ, অডিও, ভিডিও বা যেকোনো তথ্য বুঝায়, যা ইন্টারনেটের মাধ্যমে অ্যাক্সেস করা যায়।

এই ওয়েব পেজ গুলো মূলত একটি এইচটিএমএল (HTML) ডকুমেন্ট, যা এইচটিটিপি (http) প্রোটোকলের মাধ্যমে ওয়েব সার্ভার থেকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ব্যাক্তির ওয়েব ব্রাউজারে স্থানান্তরিত করা হয়।

এই সকল উন্মুক্ত ওয়েবসাইট গুলোকে সমষ্টিগত ভাবে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব বা বিশ্বব্যাপী জাল নামে বলা হয়। মনে রাখবেন, যেই ব্যাক্তি এই ওয়েবসাইট তৈরি করেন, তাকে বলা হয় ওয়েব ডেভেলপার।

ওয়েবসাইট মানে কি এটাকে যদি আমরা আরো সহজে বলি, তাহালে বলা যাবে ডোমেইনের মাধ্যমে দেখার যোগ্য ওয়েব সার্ভারে জমা রাখা ছবি, ভিডিও, অডিও, ওয়েব পেজ এবং অন্য সকল তথ্যের সমষ্টিকে একসাথে ওয়েবসাইট বলা হয়।

আপনারা হয়তো লক্ষ্য করেছেন এখানে কয়েক বার ওয়েব পেজ এর কথা উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্ত এই ওয়েব পেজ (Web page) কি বা কাকে বলে সেই সম্পর্কে আপনাদের মনে প্রশ্ন তৈরি হতে পারে। তাহালে, চলুন নিচে থেকে আমরা জেনে আসি।

ওয়েব পেজ কাকে বলে?

যেকোনো একটি ওয়েবসাইটের সিঙ্গেল পেজ (single page) কে বলা হয় ওয়েব পেজ। আপনি এখন আমার ব্লগের এই যে আর্টিকেলটি পড়ছেন, সেটা একটা সিঙ্গেল পেজ। আর এই সিঙ্গেল পেজ কে বলা হয় ওয়েব পেজ (web page).

ওয়েবপেজ (Webpage) বা ওয়েব পেজ (web page) হলো এমন একটি ডকুমেন্ট যেটা এইচটিএমএল (HTML) মানে hyper text marker language এর মাধ্যমে কোডিং করে লেখা হয়।

এই ওয়েব পেজ গুলো এক একটি ওয়েবসাইটের অংশ যেটাকে ইন্টারনেট ব্যবহার করে ইন্টারনেট ব্রাউজার এর মাধ্যমে খোলা হয়। যেকোনো একটি ওয়েব পেজে প্রবেশ করার জন্য ঔ ওয়েব পেজের নিদিষ্ট URL address লিখে সার্চ করতে হয় মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে।

তাছাড়া, আপনি অন্যান্য ওয়েবসাইটের ভেতরে থাকা বিভিন্ন Text link, image link, hyper link গুলোতে ক্লিক করে আলদা আলদা ওয়েবপেজ এর মধ্যে যেতে পারবেন। একটি ওয়েব পেজের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের তথ্য থাকে। যেমন- text, audio, video, graphic, hyper link ইত্যাদি।

আশাকরি, সহজে বুঝতে পারছেন web page কি সেই ব্যাপারে।

ওয়েব পেজ কত প্রকার ও কি কি?

web page সাধারণত দুই প্রকার। যথা-

  1. Static web page
  2. Dynamic web page

Static web page কি?

Static web page কে বলা হয় flat বা stationary web page. এই ওয়েব পেজ গুলো ইউজার ব্রাউজার ঠিক একই ভাবে লোড হয়, যেভাবে ওয়েব সার্ভারে রাখা হয়। এই ওয়েব পেজ গুলোকে স্থির তথ্য দেওয়ার জন্য তৈরি করা হয়।

এই Static web page গুলো তৈরি করা হয় এইচটিএমএল (HTML) দ্বরা তৈরি করা হয়। আসলে এই ধরনের ওয়েব পেজ গুলো এমন ভাবে  তৈরি করা হয়, যেখানে পেজের তথ্য গুলো ভবিষ্যতে পরিবর্তন করার প্রয়োজন না হয়।

Dynamic web page কি?

ডাইনামিক ওয়েব পেজ এর মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের তথ্য দেখাতে পারে। মানে এই Dynamic web page ওয়েব পেজে সব সময় তথ্য গুলো পরিবর্তন হতে থাকে।

উদাহরণঃ Facebook হলো একটি “ডাইনামিক ওয়েবসাইট”। মনে করুন, আপনি এবং আপনার এক ভাই দুইজন ফেসবুক লগইন করছেন। এবার আপনারা কিন্ত দুইজন ফেসবুকের হোমপেজে আলদা আলদা কনটেন্ট দেখতে পাবেন।

আপনাদের দুইজনের ওয়েব পেজ একই কিন্ত, আমরা দুজন আলদা আলদা কনটেন্ট দেখতে পাচ্ছি। এই ওয়েবসাইট গুলোকে এক ধরনের অ্যাপ্লিকেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করা হয়, যাকে বলা হয় server processing server side script.

ওয়েবসাইট কত প্রকার?

ওয়েবসাইট কি বা ওয়েবসাইট কাকে বলে এই ব্যাপারে তো আমরা জানলাম। তবে, ইন্টারনেটে কত প্রকার ওয়েবসাইট রয়েছে সেই ব্যাপারে জানেন তো? আসলে আমরা প্রতিদিন কিছু না কিছু তথ্য জানার জন্য বিভিন্ন ধরনের ব্লগ বা ওয়েবসাইট ব্যবহার করি।

এই ব্লগ বা ওয়েবসাইট গুলোর বাইরেও আমাদের অনেক ধরনের ওয়েবসাইট রয়েছে। যেমন- সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট (Search engine website). এই সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট গুলো অনেক জনপ্রিয়। তাহালে চলুন নিচে থেকে বিভিন্ন প্রকার ওয়েবসাইট সম্পর্কে জেনে আসি।

১. সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট

এই সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করা হয় ইন্টারনেট থেকে বিভিন্ন তথ্য (information) গুলো খোঁজ করার জন্য। যেভাবে আমরা এই আর্টিকেলটি পড়ার জন্য গুগলে গিয়ে সার্চ করেছিলাম ওয়েবসাইট কী?

তার পরে গুগল আমাদের এই ওয়েসাইট থেকে জেনে নেওয়ার জন্য পরামর্শ দিয়েছে। এই ধরনের ওয়েবসাইট গুলোতে প্রতিদিন ১ billon এর বেশি মানুষা ব্যবহার করেন।

এমন কিছু জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট গুলো হলো, Google search engine, Yahoo search engine, Bing search engine ইত্যাদি। তবে, এই সার্চ ইঞ্জিন গুলোর মধ্যে সব থেকে বেশি ব্যবহার হয় Google search engine.

২. পার্সোনাল/ব্লগ ওয়েবসাইট

এখান থেকে কয়েক বছর আগে ব্লগ বা ব্লগ ওয়েবসাইট গুলোর জনপ্রিয়তা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। কারণ, এই ব্লগ ওয়েবসাইটে অনেক ধরনের তথ্য থাকে। যেমন- text, video, image, graphic ইত্যাদি।

আপনি এখন আমার এই আর্টিকেলটি পড়ছেন এটা একটি পার্সোনাল/ব্লগ ওয়েবসাইট। আমি এখানে আমার নিজের দক্ষতা, জ্ঞান দিয়ে আর্টিকেল লিখি। যার ফলে আমার ব্লগে আসা ভিজিটর্সদের সাহায্য করি।

আমার এই ব্লগের সব কিছু আমি নিজে করেছি যার জন্য এই sofolfreelancer.net ব্লগ বা ওয়েবসাইট কে personal blog বা website বলা যেতে পারে।

তবে, আপনি চাইলে একটি personal blog তৈরি করে নিতে পারবেন Blogger.com থেকে। কিভাবে একটি ফ্রি ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করবেন সেটা জানুন নিচে থেকে।

৩. ইমেজ গ্যালারি ওয়েবসাইট

আমরা ইন্টারনেটে অনেক সময় ছবি বা ওয়েলপেপার (wallpapers) সার্চ করি। আপনি ও যদি এমন সার্চ করেন তাহালে আপনার চেখে এই ধরনের ইমেজ ওয়েবসাইট গুলো পড়বে। এই ওয়েবসাইট গুলোতে আপনি কোনো ধরনের তথ্য পাবেন না।

তবে, এই ওয়েবসাইট থেকে আপনি হাজার হাজার ছবি দেখতে পারবেন এবং সেই ছবি গুলো নিজের মোবাইলে বা কম্পিউটারে ডাউনলোড করতে পারবেন। এই ধরনের ওয়েবসাইট গুলোকে image gallery sites বা stock image ওয়েবসাইট বলা হয়।

আমি কয়েকটি ইমেজ গ্যালারী ওয়েবসাইটের উদাহরণ দিচ্ছি, যে ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে থেকে আপনারা শুধুমাত্র ইমেজ পাবেন। যেমন- pixabey, pixels, unsplash ইত্যাদি।

৪. সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট

বর্তমানে বিশ্বের অন্যান্য ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে সব চেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুলো হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট (social media website). যেমন- Facebook, Instagram, Twitter ইত্যাদি।

মানুষরা এই সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করে ইনটারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন মানুষের সাথে কথা বলা, যোগাযোগ করার জন্য। তাছাড়া, এই ওয়েসাইটের মাধ্যমে দেশ বিদেশের বিভিন্ন মানুষের সাথে বন্ধুত্ব করতে পারবেন।

তবে, মনে রাখবেন এই সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলো সবার পক্ষে তৈরি করা সম্ভব না। আর বিশ্বের সব চেয়ে জনপ্রিয় ও সেরা সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট হলো ফেসবুক (Facebook).

৫. অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট

এখান থেকে কয়েক বছর আগে এই ওয়েবসাইট গুলোর চাহিদা তেমন বেশি ছিলো না। কিন্ত বর্তমানে এই অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট গুলোর চাহিদা এবং জনপ্রিয়তা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।

কারণ, এখন প্রতিদিন প্রায় লক্ষ লক্ষ মানুষরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে এই অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট ব্যবহার করে ঘরে বসে কেনাকাটা করছে। এর জন্য আপনাকে আশেপাশের দোকানে যাবার প্রয়োজন হবে না।

আপনি ঘরে বসে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে শপিং করতে পারবেন। এমন কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইটের নাম হলো, Amazon.com, flipkart.com, amazon.in, alibaba.com, snapdeal.com ইত্যাদি।

৬. প্রশ্ন উত্তর ওয়েবসাইট

এই ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করে অনলাইনে প্রশ্ন উত্তর দেওয়া হয়। আসলে এটা এমন একটি ওয়েবসাইট যেখানে মানুষরা অনলাইনের মাধ্যমে একে অপরের সাথে text মেসেজের মাধ্যমে কথা বলতে পারে। এবং তার যেকোনো সমস্য সমাধানের পরামর্শ দিতে পারেন।

এই ধরনের forum website গুলো বেশি ভাগ ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন মানুষের সমস্য সমাধান বা প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার জন্য। এমন কিছু জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হলো, Quora এবং Yahoo answer

এখানে আপনি নিজে একাউন্ট তৈরি করে বিভিন্ন মানুষের করা প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন এবং আপনার অজানা বিষয়ে বিভিন্ন মানুষের কাছে প্রশ্ন করতে পারবেন।

৭. কোম্পানি ওয়েবসাইট

একটি কোম্পনির ওয়েবসাইটে সাধারণত সেই কোম্পনির তথ্য গুলোর ব্যাপারে তথ্য প্রদান করা হয়। এই ধরনের ওয়েবসাইট গুলো ২ থেকে ১০ টি পেজের মধ্যে তৈরি করা হয়।

বেশি ভাগ কোম্পনির ওয়েবসাইট গুলোতে আপনারা Home Page, About Us, Contact Us, Privacy & Policy, Service ইত্যাদি ধরনের তথ্য গুলো পাবেন।

এছাড়া, কোম্পনি ওয়েবসাইটে কিছু পেজ তৈরি করা থাকে যেখান থেকে আপনারা কোম্পনির সাথে জড়িত সাধারন কিছু তথ্য গুলো পাবেন।

আজকে আমরা কি শিখলাম

তাহালে, বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম ওয়েবসাইট কি? এবং ওয়েবসাইট কত প্রকার সেই ব্যাপারে। আশাকরি, এই বিষয়ে আপনাদের সম্পর্ন জ্ঞান পেয়ে গেছেন।

আমার লেখা What is website আর্টিকেলটি যদি আপনাদের কাছে ভালো লাগে তাহালে নিচে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে