গুগল থেকে টাকা আয় করার ৩ টি উপায় (Earn from google)

4
366
গুগল থেকে টাকা আয় করার ৩ টি উপায় (Earn from google)
গুগল থেকে টাকা আয় করার ৩ টি উপায় (Earn from google)

গুগল থেকে টাকা আয়ঃ আপনি যদি গুগল থেকে টাকা আয় করতে চান তাহালে Google Search করুন অনলাইন আর্নিং (online earning) লিখে অনেক টিপস পেয়ে যাবেন। বর্তমানে ইন্টারনেট থেকে অনলাইন ইনকাম (online income) করার বিভিন্ন মাধ্যম রয়েছে, যেগুলো সত্তি অনেক কার্যকর। (earn money from Internet)

এমন অনেক লোক আছে যারা পার্ট টাইম এবং ফুল টাইম অনলাইন কাজ করে আয় করছে। আমি নিজেও ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করছি বেশ ভালো পরিমানে।

এখন অনেকের মনে প্রশ্ন আসতে পারে আসলে কি ইন্টারনেট থেকে অনলাইন টাকা ইনকাম করা কি সম্ভব? এই প্রশ্নের সহজ উত্তর হা ১০০% সম্ভব। কেননা আমি নিজেও কাজ করি।

বন্ধুরা আজকে আমরা এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জানবো কিভাবে গুগল থেকে টাকা আয় করব সেই সম্পর্কে। তাহালে চলুন নিচে থেকে জেনে আসি।

গুগল থেকে টাকা আয় করার সহজ ৩ টি উপায় (Bangla guide)

আমি নিচে গুগল থেকে অনলাইন ইনকাম করার যে উপায় গুলো বলবো সেগুলো অনেক কার্যকর। হাজার হাজার মানুষরা এই উপায় গুলো ব্যবহার করে Internet থেকে ইনকাম করছে।

(১) ব্লগিং করে টাকা আয় করুন

Blogger হলো google এর একটি ফ্রি ফ্লাটফর্ম। যেটা ব্যবহার করে আপনি সহজে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। মনে রাখবেন ব্লগার দিয়ে ব্লগ বানালে আপনাকে হোস্টিং, ডোমেইন খরচ লাগবে না। গুগলের ফ্রি প্লাটফর্ম ব্যবহার করার জন্য আপনাকে এগুলো কেনা লাগবে না।

বর্তমানে ব্লগ থেকে অনলাইন ইনকাম করা মানুষের সংখ্যা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। আপনার ব্লগে যদি প্রতিদিন ভালো পরিমানে ট্রাফিক আসে তাহালে প্রতিদিন কমপক্ষে $৫ থেকে $৫০ ডলার আয় করতে পারবেন। তবে, কিছু কিছু ক্ষেএে আরো বেশি পরিমানে টাকা আয় করা সম্ভব।

আপনি ইউটিউব টিউটোরিয়াল দেখে মাএ ১০ মিনিটে একটি blogger blog তৈরি করে নিতে পারবেন। ব্লগিং সম্পর্কে আরো বিস্তরিত জানতে নিচের আর্টিকেল গুলো পড়ুন।

ব্লগিং থেকে টাকা আয় করার উপায়

ব্লগিং করে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় গুলো নিচে উল্লেখ করা হলো।

  1. প্রথমে আপনি Google এ গিয়ে Blogger.com গিয়ে একটি ব্লগ তৈরি করুন।
  2. এবার ব্লগের জন্য একটি পছন্দমত ডোমেইন বেঁছে নিতে হবে। ডোমেইন কেনার নিয়ম গুলো জানুন
  3. নিজেের ব্লগ ওয়েবসাইটের জন্য সুন্দর ফাস্ট থিম বেঁছে নিন।
  4. ব্লগ ওয়েবসাইটে ভালো হাই কোয়ালাটি এবং ইউনিক আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করুন।
  5. আপনার লেখা আর্টিকেল গুলো যাতে গুগলে দ্রুত রেংক করে তার জন্য অন পেজ এসইও এবং অফ পেজ এসইও করুন।
  6. যখন নিজের ব্লগে ভালো পরিমানে ভিজিটরর্স বা ট্রাফিক আসবে তখন গুগল এডসেন্স এ আবেদন করুন। এডসেন্স এপ্রুভাল পেয়ে গেলে ব্লগে বিঙ্গপন বা এড দেখিয়ে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন। কিভাবে সহজে এডসেন্স পাবেন সেটা জানতে নিচের আর্টিকেলটি পড়ুন।

তাছাড়া আপনার ব্লগে যদি ভালো পরিমানে ট্রাফিক আসে তাহালে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন। এই সম্পর্কে বিস্তরিত জানতে নিচের আর্টিকেলটি পড়ুন।

(২) কিভাবে YouTube থেকে আয় করবেন?

ব্লগিং করার পরে অনলাইন ইনকাম করার সবচেয়ে কার্যকর উপায় হলো YouTube. প্রায় সকল মানুষরা তাদের সমস্যা গুলো সমাধান করার জন্য ইউটিউব ভিডিও দেখে। এজন্য গুগল থেকে অনলাইন আয় করা নতুন একটি সুযোগ এসেছে আপনার জন্য।

আমি আপনি সবাই জানি YouTube হলো Google Company এর একটি সার্ভিস বা প্রডাক্ট। এখন আপনি YouTube content creator হিসাবে একটি YouTube channel তৈরি বিভিন্ন বিষয়ে ভিডিও তৈরি করে আপলোড করেন, তাহালে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার সুন্দর একটি সুযোগ থাকছে আপনার কাছে।

বর্তমানে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে হাজার হাজার মানুষরা প্রতিমাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছে। তবে, অবশ্যই আপনাকে ভালো কোয়ালাটির ভিডিও ভিডিও বানাতে হবে। যাতে ভিজিটরদের কাজে লাগে এবং তারা ভালো পায়। তখন আপনি Successful YouTuber হিসাবে পরিচিত পাবেন।

ইউটিউব থেকে টাকা আয়ের উপায় (earn money from YouTube)

আপনি নিচের স্টেপ গুলো ফলো করে ইউটিউব থেকে অনলাইন টাকা আয় করতে পারবেন।

  • সর্ব প্রথম আপনাকে একটি ইউটিউব চ্যানেল বানাতে হবে। এবং চ্যানেলের সুন্দর একটি নাম সিলেক্ট করতে করতে হবে।
  • চ্যানেলের জন্য একটি লোগো, চ্যানেল আর্ট, চ্যানেল ডিসক্রিপশন সহ setting গুলো ঠিক করে  হবে।
  • এবার চ্যানেলে ভালো কোয়ালাটির ভিডিও আপলোড করতে হবে। মনে রাখবেন ভিডিও গুলো আপনার নিজের তৈরি করা ভিডিও হতে হবে। কোথাও থেকে কপি করলে হবে না।
  • ভিডিও আপলোড করার সময় title এবং description অবশ্যই ভালো করে লিখতে হবে এবং ভিডিওতে অবশ্যই আকর্ষণীয় thumbnail দিতে হবে।
  • ইউটিউবের নিয়ম মেনে ভিডিও আপলোড করতে হবে। তাছাড়া টাকা আয় করার জন্য চ্যানেলে ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১০০০ subscribe থাকতে হবে।
  • এবার আপনার youtube channel টি google adsense এর সাথে যুক্ত করতে হবে। মানে google adsense monetization এর জন্য আবেদন করতে হবে।
  • এবার গুগল এডসেন্স থেকে আপনার ইউটিউব চ্যানেল রিভিউ করে দেখা হবে। যদি এডসেন্স এর নিয়ম কানুন মেনে ভিডিও পাবলিশ করে তাহালে কিছু দিনের মধ্যে approve করে দিবে। তখন থেকে আপনি ভিডিওতে এড দেখিয়ে গুগল থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

গুগল প্লে স্টোর থেকে আয় (Google play store)

Google এর একটি ফ্রি সার্ভসের নাম হলো Google play store. এখান থেকে আপনি এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনের জন্য ফ্রিতে প্রচুর পরিমানে অ্যাপস ডাউনলোড করতে পারবেন। মনে রাখবেন আপনি যেকোনো ধরনের apps download করতে পারবেন।

কিন্ত আপনি কি জানেন Android apps তৈরি করে গুগল থেকে টাকা আয় করা যায়। আপনি নিজেও google play store এ Android apps জমা দিয়ে বিঙ্গপনের মাধ্যমে আয় করতে পারবেন। আপনি যখন কোনো এন্ড্রয়েড অ্যাপস ব্যবহার করেন তখন লক্ষ করেছেন যে সেখানে বিভিন্ন কোম্পানির বিঙ্গপন দেখানো হয়।

আপনার মোবাইলে থাকা প্রতিটি অ্যাপস ব্যবহার করার সময় কিছু সময় পর পর একটি করে ads দেখায়। এই ads গুলো দেখানো হয় গুগল থেকে। আর এজন্য apps developer রা ভালো পরিমানে টাকা আয় করছে গুগল থেকে।

কিভাবে এন্ড্রয়েড অ্যাপস থেকে টাকা আয় করবেন?

মনে রাখবেন, apps দ্বারা টাকা আয় করার জন্য গুগল তৈরি করে রেখেছে admob সার্ভিস। আপনি যখন admob দ্বারা ads লাগিয়ে google play store এ ছেড়ে দিবেন তখন হাজার হাজার মানুষরা প্রয়োজন অনুসারে অ্যাপটি ডাউনলোড করবে।

Download করার পরে install করার পরে অ্যাপ ব্যবহার করার সময় ads দেখানো হবে। তখন আপনি টাকা আয় করতে পারবেন। তাহালে বুঝলেন কিভাবে app দিয়ে গুগল থেকে টাকা আয় করতে হয়।

আজকে আমরা কি শিখলাম

তাহালে, বন্ধুরা আজকে আমরা শিখলাম কিভাবে গুগল থেকে টাকা আয় করতে হয় বা google থেকে টাকা আয় করার ৩ টি উপায় সম্পর্কে (earn money from google). এখন আপনি যদি গুগল থেকে টাকা ইনকাম করতে চান। তাহালে উপরের ৩ টি উপায় থেকে যে কোনো একটি উপায়ে টাকা আয় করতে পারবেন। আমি আশাকরি এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লাগছে এবং আপনি কিছু শিখতে পারছেন।

এছাড়া এই আর্টিকেল সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহালে নিচে কমেন্টে জানান এবং আমার লেখাটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না।

4 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে