গুগল সার্চ ইঞ্জিনে ওয়েবসাইট কিভাবে জমা দিবেন?

অনেকে হয়তো জানে না একটি কিভাবে গুগল সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট জমা দিতে হয়। আজকে আমি এই বিষয় নিয়ে কথা বলবো। একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার পরে সব থেকে জরুরি কাজ হলো সেখানে ভালো মানের কনটেন্ট / আর্টিকেল পাবলিশ করা। যদি আপনার সাইটে আর্টিকেল লেখার পরে সেগুলো পড়ার জন্য কেউ না থাকে তাহালে আপনার লাভ কি?
তাছাড়া, website এ যদি ট্রাফিক না আসে তাহালে কোনো ভাবে টাকা ইনকাম করতে পারবেন না। তাই ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানানোর পরে প্রথম কাজ হলো ব্লগে ট্রাফিক বা ভিজিটর নিয়ে আসা। আপনি অবশ্যই জানেন গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে ফ্রিতে সাইটে ট্রাফিক বা ভিজিটর পাওয়া যায়।
কিন্ত তার জন্য আপনার ওয়েবসাইটকে গুগলের সার্চ ইঞ্জিনে জমা দিতে হবে। কারণ, আপনি যে ওয়েবসাইট তৈরি করেছেন তার বিষয়ে গুগলের কাছে কোনো তথ্য নেই। তাই প্রতিটি নতুন ওয়েবসাইট বানানোর পরে সেটা google এ জমা দিয়ে তাদের জানিয়ে দিতে হয়। না হলে গুগল আমাদের সাইটের তথ্য গুলো দেখাবে না।

 

এর জন্য আমরা Google search console ব্যবহার করতে পারি। আবার এটাকে অনেকে বলে Google webmaster tools. মনে রাখবেন, গুগল সার্চে ওয়েবসাইট জমা দেওয়া অনেক সহজ। তাহালে চলুন আমরা জেনে আসি Google search console কি?
Google search console কি?
গুগল সার্চ কনসোল (google search console) হলো google এর ফ্রি সেবা। যার মাধ্যমে সার্চ ইঞ্জিনে হওয়া আপনার ওয়েবসাইটে প্রতিটা তথ্য আপনি পেয়ে যাবেন। যেমন- google search result পেজে কত বার দেখানো হচ্ছে, ওয়েবসাইট কিভাবে দেখাচ্ছে, সঠিক ভাবে সাইট index করা হচ্ছে কি না, কোন কোন কীওয়ার্ড এর জন্য মানুষরা ওয়েবসাইটে ক্লিক করছে। সাইটে কত গুলো ব্যাকলিংক রয়েছে। এ সকল তথ্য সহজে পেয়ে যাবেন।
এক কথায় বলতে গেলে আপনার ওয়েবসাইট এবং গুগল সার্চ ইঞ্জিনে কি কি হচ্ছে তার সকল তথ্য আপনি পেয়ে যাবেন। এছাড়া আপনার সাইটের কোন page এ যদি সমস্য থাকে তাহালে সেটাও google search console tool এর মাধ্যমে জানিয়ে দিবে। এজন্য প্রতিটি ব্লগার বা ওয়েবসাইটের মালিকরা এই টুল (tool) ব্যবহার করে।
তাহালে, বন্ধুরা বুঝতে পারছেন google search console কি? এবং এর কাজ কি?
গুগল সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট কিভাবে জমা দিবেন? (how to submit a website in google search)
আমি প্রথমে বলেছি নতুন ওয়েসাইট গুগল সার্চে ইনডেক্র (index) করাটা অনেক সহজ। এজন্য আপনি নিচের স্টেপ গুলো ফলো করুন। মাএ ২ মিনিটের মধ্যে নিজের ওয়েবসাইটটি যুক্ত করতে পারবেন।
স্টেপ ১. প্রথমে google search console website এ গিয়ে গুগল একাউন্ট বা জিমেইল একাউন্ট ব্যবহার করে লগইন করুন। search console এ লগইন করার পরে আপনাকে দুইটি অপশন দেখাবে। যেমন-
Domain
URL prefix
স্টেপ ২. এবার গুগলে সাইট সাবমিট করার জন্য আপনাকে URL prefix অপশনটি ব্যবহার করতে হবে। সেখানে নিজের ওয়েবসাইটের পূর্ন URL address লিখতে হবে। এবার Continue অপশনে ক্লিক করতে হবে।
স্টেপ ৩. এবার verify ownership বলে একটি পেজ দেখানো হবে এবং কিছু verification methods দেখাবে। এখানে যে ওয়েবসাইটটি জমা দিয়েছ সেটা নিজের বলে প্রমান করতে হবে।
 
স্টেপ ৪. গুগল সার্চ কনসোল এর সাথে ওয়েবসাইট ভেরিফ্যায় করার জন্য আপনাকে দুইটা অপশন দেওয়া হবে। যেমন-
HTML File
HTML Tag
এই দুইটা থেকে যেটা আপনার নিজের কাছে সহজ মনে হবে সেটা দিয়ে verify করতে পারবেন।
স্টেপ ৫. আমি আপনাকে HTML Tag এর মাধ্যমে ভেরিফ্যায় করারর উপায় বলে দিবো। আপনি যদি blogger user হয়ে থাকেন তাহালে HTML tag কপি করে ব্লগার ওয়েবসাইটের HTML code editor এ থাকাট্যাগের নিচে পেষ্ট করে them টি save করুন। তারপরে আবার google search console পেজে এসে verify বাটুনে ক্লিক করুন।
এবার আপনাকে একটি notification দেখাবে ownership verified. তার মানে গুগল সার্চ ইঞ্জিন আপনার ওয়েবসাইটটি জমা হয়ে গেছে।
এবার আপনাদের বলবো WordPress website search console verification করার নিয়ম।
স্টেপ ১. প্রথমে আপনি HTML Tag এর google search console পেজ থেকে verification method code কপি করে নিন।
স্টেপ ২. এবার আপনার WordPress dashboard যেতে হবে। সেখানে নতুন একটি প্লাগিন (plugin) ইনস্টল করতে হবে। এজন্য WordPress dashboard থেকে plugins <> add new plugin অপশনে গিয়ে insert header and footer প্লগিনটি সার্চ করে ডাউনলোড করার পরে active করতে হবে।
স্টেপ ৩. এবার WordPress dashboard থেকে নিচে বাম দিকে setting অপশনে গিয়ে insert header and footer অপশনে ক্লিক করে scripts in header box এ কপি করা HTML TAG পেষ্ট করে নিচে থাকা save বাটুনে ক্লিক করুন।
স্টেপ ৪. এবার search console পেজে এসে HTML tag অপশনের নিচে ডান দিকে verify বাটুনে ক্লিক করুন। তারপরে দেখাবে ownership verified. মানে আপনার ওয়েবসাইটটি গুগল সার্চ কনসোল এ সংযুক্ত হয়ে গেছে।
তাহালে, আজকের এই আর্টিকেল থেকে আমরা জানলাম কিভাবে গুগল সার্চ কনসোল এ ওয়েবসাইট জমা দিতে হয়। আশাকরি এ বিষয়ে ভালো করে বুঝে গেছেন। আর প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্টে করুন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap