ট্রেনের টিকিট কাটার অ্যাপস

ট্রেনের টিকিট কাটার অ্যাপস : আপনি কি জানেন ঘরে বসে মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম? যদি না জেনে থাকেন তাহলে আজকের আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

কারণ, আজকের আর্টিকেলে আমি বলবো অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম সম্পর্কে। আপনি কোন কোন অ্যাপস ব্যবহার করে মোবাইলে সহজে ট্রেনের টিকিট কাটতে পারবেন সেগুলোর ব্যাপারে বলবো।

আপনি বাহিরে কোথাও চাকরি বা পড়াশোনা করেন। ঈদে বাড়িতে আসার সময় অনেক লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে ট্রেনের টিকিট কাটতে হয়।

অনেক সময় দেখা যায় সারাদিন লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে ও ট্রেনের টিকিট পাওয়া যায় না। তখন আমাদের বাড়ি আসা অনেকটা অনিশ্চিত হয়ে যায়।

যাত্রীদের এই সব দুর্ভোগ থেকে বেরিয়ে আসার জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য একটি অ্যাপ তৈরি করেছে।

এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনি ঘরে বসে ট্রেনের টিকিট বুকিং দিতে পারবেন। আপনাকে কষ্ট করে স্টেশনে গিয়ে লম্বা লাইনে দাঁড়াতে হবে না।

তাহলে চলুন নিচে থেকে জেনে আসি ট্রেনের টিকিট কাটার অ্যাপস এর সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে।

ট্রেনের টিকিট কাটার অ্যাপস

মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে যে অনলাইন অ্যাপ তৈরি করেছে সেটা নাম হলো Rail Sheba.

আপনি এই অ্যাপটি google play store থেকে সম্পূর্ণ ফ্রিতে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তাছাড়া রেল সেবা এই লিংক থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

রেল সেবা অ্যাপটি ডাউনলোড করার পরে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য প্রথমে আপনাকে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে।

টাকা ইনকাম করার অ্যাপ (Android apps -2022)

রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য আপনার ফুল নাম, ইমেইল, ফোন নাম্বার, পাসওয়ার্ড, জাতীয় পরিচয় পত্র বা জন্ম নিবন্ধন কার্ড, পোষ্ট কোড এবং ঠিকানা দিয়ে Sine Up  করলে রেজিষ্ট্রেশন সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম অ্যাপের মাধ্যমে

আপনি প্রথমে Rail Sheba এই অ্যাপে প্রবেশ করবেন এবং ফোন নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করবেন। লগইন করার পরে আপনি নিচের ছবির মতো একটি পেজ দেখতে পাবেন।

মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

এই ফর্মের মাধ্যমে আপনাকে ট্রেনের টিকিট কাটতে হবে। এই ফর্মটি পূরণ করে টিকিট কাটার প্রথম ধাপ সম্পূর্ণ করতে হবে। যেভাবে ফর্মটি পূরণ করবেন।

  • From : আপনি যেখান থেকে ট্রেনে উঠতে চান, সেই রেল স্টেশনের নাম লিখুন।
  • To : আপনি যেখানে যেতে চান সেই রেল স্টেশনের নাম লিখুন।
  • Date of Journey : আপনি কত তারিখে ট্রেনে যেতে চাচ্ছেন সেই তারিখ সিলেক্ট করুন।
  • Choose Class : আপনি কোন ধরনের ট্রেন ক্লাসে যেতে চাচ্ছেন সেটা সিলেক্ট করুন।
  • তারপর FIND TICKET অপশনে ক্লিক করুন।

এবার আপনি দেখতে পাবেন আপনার সিলেক্ট করা তারিখে আপনি যে জায়গা থেকে যে জায়গায় যেতে চাচ্ছেন সেখানে যাওয়ার জন্য কতটা ট্রেন রয়েছে সব গুলো ট্রেনের লিস্ট দেখতে পাবেন।

আপনি এর মধ্যে থেকে পছন্দের একটি ট্রেন সিলেক্ট করে সিট বুকিং করতে পারবেন। মনে রাখবেন একজন ব্যাক্তি রেল সেবা অ্যাপের মাধ্যমে সর্বচ্ছ ৪ টি টিকিট কাটতে পারবেন।

সিট বুকিং করার জন্য view site অপশনে ক্লিক করবেন। এখানে আপনি যে সিট গুলো গ্রে কালারের দেখতে পাচ্ছেন সেগুলো আগে থেকে কাটা / বুকিং করা হয়ে গেছে।

আর যে সিট গুলো আপনি সাদা কালারের দেখতে পাচ্ছেন সেগুলো এখনো কাটা বা বুকিং করা হয়নি। তাই আপনি সাদা সিট গুলো থেকে যেকোনো একটি পছন্দ করে সিলেক্ট করলে সবুজ কালারের হয়ে যাবে।

সবুজ কালারের সিলেক্ট করা সিটটি আপনি বুকিং দিয়েছেন। এবার আপনি নিচের দিখে চলে আসুন। নিচে CONTINUE PURCHASE এই অপশনে ক্লিক করুন।

এবার পরের পেজে আপনাকে যাত্রীর নাম, যাত্রীর টাইপ, কন্টাক্ট নাম্বার, ইমেইল এড্রেস ইত্যাদি গুলো লিখতে হবে।

এরপর আপনি নিচের দিকে চলে আসুন এবং সেখানে পেমেন্ট অপশন দেখতে পাবেন। এখানে আপনি বিকাশ / নগদ / উপায় অপশন গুলো দেখতে পাবেন।

আপনি যেকোনো একটি অপশন সিলেক্ট করে ট্রেনের টিকিট এর পেমেন্ট করতে পারবেন। পেমেন্ট করার পরে আপনার টিকিট কাটার কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

এরপর আপনার ট্রেনের টিকিটটি সেভ করতে হবে এবং প্রিন্ট করে বের করে নিতে হবে। আপনি এর প্রিন্ট করা টিকিট নিয়ে ট্রেনে ভ্রমন করতে পারবেন।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য

মোবাইলে রেল সেবা অ্যাপের মাধ্যমে উপরে বলা নিয়ম গুলো অনুসারণ করলে খুব সহজে ঘরে বসে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে পারবেন।

তবে, ট্রেনের টিকিট কাটার আগে আপনি ট্রেনের সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জেনে নিতে পারবেন। এর জন্য অ্যাপে লগইন করে Purchase অপশনে ক্লিক করলে টিকিট কাটার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পারবেন।

আবার আপনি যদি ট্রেন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে চান তাহলে Information অপশনে ক্লিক করুন তাহলে ট্রেন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।

মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার অ্যাপস এর ফ্রি কত?

মোবাইলে রেল সেবা অ্যাপের মাধ্যমে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য আপনাকে ২০ টাকা চার্জ বা ফ্রি দিতে হবে। এই ফ্রি আপনি পেমেন্ট করার সময় কেটে নেওয়া হবে।

আমার মনে হয় ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য কষ্ট করে লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে মূল্যবান সময় নষ্ট করার কাছে ২০ টাকা চার্জ খুবই সামান্য।

তাছাড়া অনেকে আছেন সারাদিন লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে দিন শেষে ট্রেনের টিকিট কাটতে পারে না। তাই আপনি সহজে টিকিট কাটতে বাংলাদেশ রেলওয়ে এর Rail Sheba অ্যাপটি ব্যবহার করুন।

শেষ কথা

আজকে আমরা জানলাম মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার অ্যাপস সম্পর্কে। আশাকরি আপনি রেল সেবা অ্যাপের মাধ্যমে মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারছেন।

আমার লেখা আর্টিকেলটি আপনার কাছে যদি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের জন্য ফেসবুকে শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap