বাংলাদেশি App দিয়ে টাকা ইনকাম ২০২৩

আপনারা যারা বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম করতে চান, আজকের আর্টিকেলটি শুধুমাত্র আপনার জন্য। কারণ, এখানে আমি এমন কয়েকটি বাংলাদেশি অ্যাপ এর কথা বলবো যার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করে বিকাশ পেমেন্ট নিতে পারবেন।

আপনার হাতে যদি প্রচুর অবসর সময় থাকে এবং আপনি যদি কোন কাজ খোঁজ করতে চান তাহলে তাহলে বাংলাদেশি অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম করার সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন।

দেশের পরিস্থিতি অনুযায়ী বাহিরে গিয়ে টাকা ইনকাম করার চেয়ে ঘরে বসে টাকা ইনকাম করা অনেক সহজ। তাই এমন কিছু অ্যাপের নাম বলে দিবো যেগুলোতে কাজ করলে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তাহলে ঘরে বসে আর সময় নষ্ট না করে এবং আর্থিক অটনের মধ্যে না পড়ে এই বাংলাদেশি app গুলোতে কাজ করে টাকা আয় করতে পারেন। 

বাংলাদেশি App দিয়ে টাকা ইনকাম ২০২৩

বর্তমানে দেশের বেকারদের ভাগ্য খুলে যাচ্ছে অনলাইন কাজের মাধ্যমে। কারণ, এমন অনেক মানুষ রয়েছে যারা বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে কাজ করে টাকা ইনকাম করছে।

তাই, আপনিও চাইলে আজই শুরু করতে পারেন ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম। আর আপনি যদি মোবাইল অ্যাপ দিয়ে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

আজকে আমি যে অ্যাপ গুলোর সাথে আপনাদের পরিচয় করে দিবো, সেই অ্যাপ গুলোতে থেকে সহজে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এই বাংলাদেশি app গুলোতে কাজ করার সুবিধা হলো বিকাশ, রকেট, নগদ, উপায় অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন।

তাহলে, চলুন নিচে থেকে সেই বাংলাদেশি অ্যাপ গুলোর ব্যাপারে বিস্তারিত জেনে আসি।

(১) Taka Income – টাকা ইনকাম

টাকা ইনকাম এই অ্যাপটি বাংলাদেশের একটি প্লে টু উইন ক্যাশ অ্যাপস। এই অ্যাপে আপনারা বিভিন্ন ধরনের গেম পাবেন। যে গেম গুলো খেলে আপনারা নগদ অর্থ পুরস্কার পাবেন।

এছাড়া, গণিত, সাধারণ জ্ঞান, খেলাধুলা, বিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক, ইসলামিক কুইজ খেলে পুরস্কার জিতে নিতে পারেন। এই পুরস্কারের টাকা বিকাশ, নগদ এবং মোবাইল রিচার্জ এর মাধ্যমে তুলে নিতে পারবেন।

এই অ্যাপে সহজে নিজের একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে পারবেন ইমেইল এবং মোবাইল নম্বর দিয়ে। মনে রাখবেন, অ্যাপে প্রবেশ করার সময় অবশ্যই ভিপিএন (VPN) কানেক্ট করতে হবে এবং যার লোকেশন দিতে US.

VPN ছাড়া আপনারা অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারবেন না। বর্তমানে বাংলাদেশে এই অ্যাপের অনেক জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে। ১ লাখের বেশি মানুষ এটা ব্যবহার করছে এবং যার ইউজার রেটিং ৪.৬। এই অ্যাপের pro version ও পেয়ে যাবেন।

(২) Pocket Money

বর্তমানে বাংলাদেশি অ্যাপ গুলোর মধ্যে অনেক জনপ্রিয় এবং বিশ্বস্ত একটি অ্যাপের নাম পকেট মানি (pocket money). এই অ্যাপে কাজ করে আপনারা বেশ ভালো পরিমানে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এখানে আপনারা রেফার করে এবং spin খেলে টাকা আয় করতে পারবেন। দিনে দিনে এই অ্যাপের ব্যবহার বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং প্রচুর পরিমানে মানুষ এখান থেকে টাকা ইনকাম করছে।

আপনার ইনকাম করা টাকা গুলো মোবাইল রিচার্জ, বিকাশ, নগদ, রকেট ইত্যাদি মাধ্যমে তুলে নিতে পারবেন। এখানে রেফার করে বা spin খেলে আপনি কয়েন পাবেন।

এই কয়েন ভাঙ্গিয়ে আপনাকে টাকায় পরিনিত করতে হবে। তারপর সেগুলো পেমেন্ট নিতে পারবেন। গুগল প্লে স্টোর থেকে ৫০ হাজারের বেশি ইউজার এটা ডাউনলোড করেছে এবং যার ইউজার রেটিং ৪.১।

অ্যাপ ডাউনলোড করুন – Pocket Money

(৩) Meesho : Online Shopping App

এই meesho শপিং অ্যাপের মাধ্যমে আপনারা টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে, প্রথমে এই অ্যাপের বিষয় ভালো করে জানতে হবে। 

আপনি অবশ্যই অনলাইন মার্কেটি এর সম্পর্কে জানেন। অনলাইন মার্কেটিং এর কাজ যেমন পণ্য সেল (sell) করা ঠিক তেমনি meesho app এ কাজ করতে হলে আপনাকে পণ্য সেল (sell) করতে হবে।

আপনি যদি একটি অনলাইন শপ (online shop) থাকে তাহলে আপনি সেই অ্যাপের মাধ্যমে ক্রেতাদের কাছে নিজের পণ্য গুলো বিক্রি করতে পারবেন।

কিন্ত, এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনার যদি অনলাইন শপ না থাকে তাহলে বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করে তাদের পণ্য গুলো meesho app এ বিক্রি করতে পারবেন।

এভাবে পণ্য বিক্রি করে আপনি অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এই অ্যাপে কাজ করা কিছুটা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর মতো। কারণ, বিক্রয় করা পণ্যের ওপর নিদিষ্ট পরিমানে কমিশন আপনাকে দেওয়া হবে।

অ্যাপ ডাউনলোড করুন – Meesho : Online Shopping App

(৪) CWork

সিওয়ার্ক হলো এমন একটি অ্যাপ যাদের একটি ওয়েবসাইট ও রয়েছে। এখান থেকে আপনারা ভিডিও দেখে, এড দেখে এবং কপি পেষ্ট জব করার মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এই অ্যাপের মূল কাজ হলো CWork ওয়েবসাইট ভিজিট করা এবং ৩০ সেকেন্ড পর্যন্ত ওয়েট করা। প্রত্যেক বার ভিজিট করার জন্য আপনাকে ০.৯ পয়সা থেকে ০.১২ পয়সা পর্যন্ত দেওয়া হবে।

যদিও এটা অনেক কম কিন্ত তারা রিয়াল পেমেন্ট করে থাকে। আপনি এক দিনে যতবার খুশি তাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারবেন।

মনে করুন, আপনি যদি এক দিনে ৩০০ বার তাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করেন তাহলে ৩০০x০.১২ = ৩৬ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অ্যাপের মধ্যে লগইন করার পরে আপনারা কাজ শেখার সোর্স গুলো পড়ে নিবেন। তাহলে, তাদের নিয়মাবলি গুলোর সম্পর্কে সহজে জানতে পারবেন। 

এখান থেকে সর্বনিন্ম ২৫০ টাকা তুলতে পারবেন। google play store থেকে এই অ্যাপটি ১ লাখের বেশি বার ডাউনলোড হয়েছে এবং যার ইউজার রেটিং ৪.১।

অ্যাপ ডাউনলোড করুন – CWork

(৫) Bondhu – আপনার ডিজিটাল দোকান

বন্ধু অ্যাপ হলো সেবা প্লাটফর্ম লিমিটেডের একটি রিসেলিং ও রেফারেল অ্যাপ। বাংলাদেশ সকল ক্ষুদ্র ব্যবসায়িদের সুবিধার জন্য এই অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে।

এই অ্যাপের মাধ্যমে ইউজাররা গ্রগকদের কাছে সকল মোবাইল অপারেটরে টপ-আপ (top-up), sheba.xyz এর রেফারেল, প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রনিক, ডিজিটাল স্বাস্হসেবা, অ্যাক্সেসরিজ পণ্য ইত্যাদি বিক্রি করতে পারবেন।

মূলত এই অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে ব্যবহারকারীদের ব্যবসা সম্প্রসারন শক্তি বৃদ্ধি করার জন্য। গুগল প্লে-স্টোর থেকে অ্যাপটি ১ লাখের বেশি ইউজার ডাউনলোড করেছে এবং এর ইউজার রেটিং ৪.৪।

অ্যাপ ডাউনলোড করুন – Bondhu

(৬) বিকাশ অ্যাপ রেফার

বর্তমানে বিকাশ দেশের একটি জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। আপনি চাইলে ঘরে বসে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সহজে টাকা পাঠাতে পারবেন মূহুর্তের মধ্যে।

দূরদূরান্তে সহজে টাকা পাঠানো যায় বিকাশের মাধ্যমে। তাই দিনে দিনে এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা এবং জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে অধিকাংশ মানুষরা বিকাশ ব্যবহার করে অ্যাপের মাধ্যমে।

তাই, আপনি যদি এই বিকাশ অ্যাপ রেফার করে মানুষের ডাউনলোড করিয়ে নিতে পারেন, তাহলে এর মাধ্যমে ভালো পরিমানে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

বেশি রেফার করার জন্য বিকাশ অ্যাপ এর রেফার লিংক সামাজিক যোগাযোগ প্লাটফর্ম গুলো যেমন ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদিতে শেয়ার করতে পারেন।

আপনার রেফার করা লিংক থেকে যখন কেউ অ্যাপ ডাউনলোড করে বিকাশ একাউন্ট খুলবে তখন আপনি নিদিষ্ট পরিমানে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এভাবে বিকাশ অ্যাপের ডাউনলোড লিংক রেফার করে প্রত্যেক দিন বেশ ভালো পরিমানে আয় করা সম্ভব।

অ্যাপ ডাউনলোড করুন – bkash

বাংলাদেশি app দিয়ে টাকা ইনকাম করার সুবিধা

বাংলাদেশি অ্যাপ দিয়ে টাকা আয় করার প্রধান সুবিধা হলো সহজে পেমেন্ট গ্রহণ করা যায়। তাছাড়া বাংলাদেশের অ্যাপস গুলোতে পেমেন্ট গ্রহণ করার জন্য বিকাশ, রকেট, নগদ, উপায় এবং মোবাইল রিচার্জ করার অপশন গুলো থাকে।

🔰🔰 আরও দেখুন : সেরা অনলাইন ইনকাম সাইট এর তালিকা | Best 15 Online income Site

শেষ কথা

আজকে আমরা জানলাম বাংলাদেশি অ্যাপস দিয়ে টাকা ইনকাম করার সেরা উপায় গুলোর সম্পর্কে। এছাড়া আরো অনেক অ্যাপস রয়েছে যেগুলো মাধ্যমে সহজে টাকা আয় করতে পারবেন।

এই আর্টিকেল সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকে তাহলে কমেন্টে জানাবেন এবং ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap