বিজ্ঞাপন কি? বিজ্ঞাপন কত প্রকার ও কি কি?

বন্ধুরা আজকে আমরা জানবো বিজ্ঞাপন কি? (What is advertisement) এর ব্যাপারে। আপনি যখন ইন্টারনেটে, টিভিতে যেকোনো ছবি বা ভিডিও দেখার সময় মাঝে মাঝে অন্য কিছু প্রডাক্ট বা সার্ভিস গুলো দেখানো হয়। আর এটাকে বলা হয় বানিজ্যিক বিরতি।

এই বানিজ্যিক বিরতির মাধ্যমে ইন্টরনেটে বা টিভিতে যেকোনো একটি বিশেষ প্রডাক্ট, সার্ভিস, ইনফরমেশন ইত্যাদি গুলোকে সাধারন জনগণের সাথে প্রচার করা হয়। আর এই প্রক্রিয়াকে বলা হয় বিজ্ঞাপন বা এডভার্টইসমেন্ট (advertisement).

উদারহণঃ

আমরা যখন ইউটিউব বা ফেসবুকে কোনো ভিডিও দেখি তখন ভিডিওতে বিভিন্ন ধরনের produce বা service নিয়ে আমাদের এড (ads) দেখানো হয়। 

এছাড়া, আমরা যখন টিভিতে খেলা বা মুভি দেখে থাকি তখন বিভিন্ন ধরনের প্রডাক্টের বিজ্ঞাপন আমাদের দেখানো হয় হয়। যেমন- প্রাণ, কোকাকোলা, গ্রামীণফোন, ব্যাংলালিংক, রবি সহ আরো বিভিন্ন ধরনের প্রডাক্টের এডভার্টইসমেন্ট প্রচার করা হয়।

আর এই সম্পর্ন প্রক্রিয়াকে বলা হয় বিজ্ঞাপন। মনে রাখবেন বিজ্ঞাপন শুধুমাত্র ইন্টারনেটে বা টিভিতে প্রচার করা হয় না। কারণ, বিজ্ঞাপন দেখানোর আরো অনেক গুলো উপায় বা মাধ্যম রয়েছে।

যেমন- কাগজের মাধ্যমে বিজ্ঞাপন, রেডিও এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন, রাস্তার বিভিন্ন ওয়ালে বিজ্ঞাপন, ব্যানারে বিজ্ঞাপন, গাড়ি, বাস, টিশার্ট সহ আরো বিভিন্ন জায়গায় বিজ্ঞাপন বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়।

তাহালে, চলুন নিচে থেকে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে জেনে আসি বিজ্ঞাপন কাকে বলে, বিজ্ঞাপন কত প্রকার এবং বিজ্ঞাপন গুলোর উদ্দেশ্য ও সবিধা গুলো সম্পর্কে।

বিজ্ঞাপন কি? (What is advertisement)

কোনো সার্ভিস বা প্রডাক্ট গুলোকে বিক্রিয় করা বা প্রমোট করার করার উদ্দেশ্যে যখন প্রচার করা হয় তাকে বিজ্ঞাপন (advertisement) বলে। বিজ্ঞাপন হলো মার্কেটিং এর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। যার মাধ্যমে পণ্য গুলো জনগণের কাছে বিক্রয় করার উদ্দেশ্যে প্রচার করা হয়।

যেকোনো পণ্যের বিজ্ঞাপন মাধ্যে জনসাধারণকে সেই পণ্যের উপর আকৃষ্ট করার চেষ্টা করা হয়। যার ফলে মানুষরা সেই পণ্য ক্রয় করে বা ব্যবহার করে থাকে।

বিজ্ঞাপন মানে কি?

আমাদের জীবনের সাথে প্রচিনকাল থেকে বিজ্ঞাপনের সম্পর্ক রয়েছে। কারণ, আগেকার সময়ে ঢোল ও ঘন্টা বাজিয়ে মানুষের আকর্ষিত বা কোনো বিষয়ে জানানো হতো।

আর বর্তমান সময়ে সঞ্চারের বিভিন্ন মাধ্যমে গুলো ব্যবহার করে মানুষের কাছে প্রচার করা হয়। যদি সহজ ভাবে বলি তাহালে বলা যায় বিজ্ঞাপন মানে হলো একটি কার্যকর প্রচারের মাধ্যম। আর বর্তমানে বিজ্ঞাপনের বিশেষত্ব এবং ব্যবহর দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে। 

আশাকরি, বিজ্ঞাপন কাকে বলে সহজে বুঝতে পারছেন।

বিজ্ঞাপনের উদ্দেশ্য কি?

বিজ্ঞাপন কি এটা থেকে আমরা স্পষ্টভাবে বুঝতে পারি বিজ্ঞাপনের উদ্দেশ্য কি সেই সম্পর্কে। আসলে বিজ্ঞাপনের প্রধান উদ্দেশ্য হলো লাভ। এই লাভ আর্থিক ভাবে হতে পারে আবার জনমত তৈরির মাধ্যমে সামাজিক বা রাজনৈতিক ভাবে লাভ হতে পারে।

এক কথায় বলা যায়, বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে ললক্ষ্যবস্তু প্রচার করার মাধ্যমে লক্ষসমূহের আকর্ষন প্রচার করা এবং মানুষের কাছে বিক্রয় করার জন্য প্রভাবিত করা হয়। আর এটাই হলো বিজ্ঞাপনের উদ্দেশ্য।

এই প্রক্রিয়ার দুইটি পক্ষ রয়েছে। যেমন-

  1. বিজ্ঞাপ্তি কর্তা
  2. লক্ষ্য সমূহ

বিজ্ঞাপনের প্রধান উদ্দেশ্য হলো এই দুই (২) জনের মধ্যে সম্পর্ক সৃষ্টি করা। তাদের এই লক্ষ্যের উপর ভিত্তি করে বিজ্ঞাপনের তিন (৩) উদ্দেশ্য রয়েছে। যেমন- 

  1. সূচনা প্রদান করা
  2. প্রভাবিত করা
  3. স্বীকৃতি তৈরি করা

বিজ্ঞাপনের প্রধান উদ্দেশ্য হলো একটি সূচনা করা যা বিজ্ঞাপনদাতার দ্বারা লক্ষসমূহ গুলোর কাছে প্রচার করা হয়। আর এই প্রচার করা বিজ্ঞাপন গুলো উপভোক্তাদের বিজ্ঞাপনের সাথে জড়িত প্রোডাক্টের উপর নিজের বিচার তৈরি করেতে বিশেষ ভাবে সাহায্য করে।

বিজ্ঞাপনে দেওয়া সূচক কতটা ভালো ভাবে উপস্হাপন করা হয়েছে তার উপর নির্ভর করে লক্ষ্য সমূহের বিচার নির্ধারণ করা হয়।

বিজ্ঞাপন কত প্রকার ও কি কি?

বিজ্ঞাপন অনেক প্রকার বা বিজ্ঞাপন প্রচারের অনেক গুলো মাধ্যম রয়েছে। এই প্রক্রিয়া গুলোর মাধ্যমে প্রতিটি এডভার্টইসমেন্ট প্রচুর পরিমানে ব্যবহার করা হয়।

  1. Online advertisement (Digital Advertising)
  2. Print Advertising
  3. E-mail Advertising
  4. Media Advertising
  5. Call phone Advertising (Mobile Advertising)

নিচে এই বিষয়ে বিস্তরিত ভাবে আলোচনা করা হলো –

১. Online advertisement (Digital Advertising)

এই বিজ্ঞাপন গুলো ব্যবহার করা হয় ইন্টারনেটের মাধ্যমে। বর্তমানে ইন্টারনেটে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্লাটফার্ম রয়েছে সেখানে এগুলোকে দেখানো হয়। এই অনলাইন প্লাটফার্ম গুলো হলোঃ

  • Google Ads
  • Facebook Ads
  • Instagram Ads
  • Twitter Ads
  • YouTube Ads ইত্যাদি

২. Print Advertising

নিউজ পেপার, লিফলেট, পেপার ব্যানার, ভাউচার, ম্যাগাজিন সহ আরো নানা ধরনের জিনিসে প্রিন্টিং (print) এর মাধ্যমে যে বিজ্ঞাপন গুলো প্রচার করা হয় তাকে বলা হয় Print Advertising.

৩. E-mail Advertising

ই-মেইল এবং ইস্টারনেটের মাধ্যমে যে বিজ্ঞাপন গুলো প্রচার করা হয় তাকে E-mail Advertising বলা হয়।

৪. Media Advertising

বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের মিডিয়া গুলো যেমন- টিভি, রেডিও, ডিভিডি মাধ্যমে বিজ্ঞাপন গুলো প্রচার করা হয় তাকে Media Advertising বলা হয়।

৫. Call phone Advertising (Mobile Advertising)

ডিজিটাল এডভার্টইসমেন্ট করা ক্ষেত্রে মোবাইল, স্মার্টফোন, আইপ্যাড বা অন্যান্য যে ডিভাইস গুলো ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন দেওয়া হয় তাকে Call phone Advertising (Mobile Advertising) বলে।

বিজ্ঞাপন প্রচারের লাভ ও সুবিধা

এমনিতে বিজ্ঞাপন প্রচার করা অনেক লাভ ও সুবিধা রয়েছে। চলুন আমরা নিচে থেকে সেই লাভ ও সুবিধার ব্যাপারে জেনে আসি।

  • বাজারে নতুন পণ্য বা প্রোডাক্ট আনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে থাকে।
  • বর্তমানে পণ্য গুলোর প্রতিযোগীতা অনেক বেশি তাই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে গ্রাহকদের আকর্ষন করা সম্ভব।
  • ব্যবসা বা প্রোডাক্টের ব্র্যান্ড তৈরি করার ক্ষেত্রে বিশেষ ভুমিকা রাখে।
  • বিভিন্ন বিজ্ঞাপন সংস্হার মাধ্যমে মানুষের চাকরির সুযোগ বাড়ছে।
  • এর মাধ্যমে সহজে উৎপাদন করা পণ্য কাস্টমারের নজরে নিয়ে আসা যায়।
  • বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে প্রোডাক্টের চাহিদা এবং জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি করা যায়।
  • ব্লাগার ও ইউটিউবাররা অনেক সহজে তাদের ওয়েবসাইটে বা ইউটিউব চ্যানেলে বিভিন্ন কোম্পনির বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারে, যার ফলে তাদের প্রচুর টাকা আয় হচ্ছে।

এগুলো ছাড়াও বিজ্ঞাপনের আরো অনেক সুবিধা ও লাভ রয়েছে।

আজকে আমরা কি শিখলাম

তাহালে, বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম বিজ্ঞাপন কি (What is advertisement), বিজ্ঞাপন কত প্রকার এবং সুবিধা ও লাভ সম্পর্কে। এই আর্টিকেল সম্পর্কে যদি আপনাদের কোনো প্রশ্ন থাকে তাহালে নিচে কমেন্টে অবশ্যই জানাবেন এবং ভালো লাগলে শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap