ভালো কম্পিউটার চেনার উপায় 2022

ভালো কম্পিউটার চেনার উপায় গুলো আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করবো। আমাদের মধ্যে অনেকে আছেন যারা ভালো একটি কম্পিউটার কিনতে চান।

কিন্ত, কম্পিউটার সম্পর্কে কোনো অভিজ্ঞতা না থাকার কারণে সেটা কিনতে পারি না। এক্ষেত্রে দোকানদার আমাদের যে কম্পিউটার ভালো বলে আমরা সেটাই ক্রয় করি।

এর আগে আমি ভালো ল্যাপটপের বৈশিষ্ট্য নিয়ে আলোচনা করেছি। আপনারা যদি ভালো ল্যাপটপ কিনতে চান তাহলে তার বৈশিষ্ট্য গুলো জানতে আর্টিকেলটি পড়ুন।

কম্পিউটার মূলত কিনবেন আপনার ব্যবহারের উপর নির্ভর করে। আগে আপনাকে দেখতে হবে কোন ধরনের কাজের জন্য আপনি কম্পিউটার কিনতে চাচ্ছেন।

তাছাড়া, আপনার ব্যবহারের উপর নির্ভর করে আপনাকে চিন্তা করতে হবে ডেক্সটপ কিনবেন নাকি ল্যাপটপ কিনবেন। অবশ্যই বাজেটের দিক থেকে দেখলে ল্যাপটপের থেকে ডেক্সটপ সেরা।

তবে, ডেক্সটপে আপনাকে নিদিষ্ট স্থানে বসে সকল কাজ কর্ম গুলো করতে হবে। আর ল্যাপটপ আপনি যেখানে ইচ্ছা সেখানে নিয়ে যেতে পারবেন এবং যেকোনো স্থানে বসে কাজ করতে পারবেন।

কম্পিউটার সম্পর্কে A to Z বিষয় জানতে এগিয়ে এই ওয়েবসাইট নিয়মিত ভিজিট করতে পারেন। এই ওয়েবসাইটটি তৈরি করা হয়েছে শুধুমাত্র কম্পিউটার সম্পর্কে লেখালেখি করার জন্য।

ভালো কম্পিউটার চেনার উপায় 2022

আমি আগেই বলেছি আপনার কাজের উপর ভিত্তি করে আপনাকে কম্পিউটার কিনতে হবে। তার জন্য আপনাকে কম্পিউটারের মৌলিক উপাদান গুলোর সম্পর্কে একটু জানতে হবে। 

তাই, ভালো কম্পিউটার কেনার আগে নিচের বিষয় গুলোর সম্পর্কে জেনে নিলে আপনারা সহজে একটি ভালো কম্পিউটার চিনে নিতে পারবেন।

(১) হার্ডডিস্ক কত জিবি (GB) নিবেন?

কম্পিউটারের সকল তথ্য এই হার্ডডিস্কে জমা থাকবে। আপনার কম্পিউটারে যত ডকুমেন্ট,  অডিও, ভিডিও, পিকচার ইত্যাদি সব কিছু এখানে সংরক্ষিত থাকবে।

সাধারণত বলা যায় কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক যত বেশি হবে তত ভালো হবে। তাছাড়া, আপনি যত বেশি জিবি হার্ডডিস্ক কিনবেন তত বেশি তথ্য সংরক্ষণ করতে পারবেন।

বাজারে আপনি ১৬০ গিগাবাইট থেকে আরম্ভ করে ৩ ট্যারাবাইট হার্ডডিস্ক পেয়ে যাবেন। আবার আপনি চাইলে এসএসডি (SSD) কিনে অপারেটিং  সিস্টেম ইনস্টল দিতে পারেন এবং এর সাথে বাড়তি তথ্য সংরক্ষণ করার জন্য একটি হার্ডডিস্ক কিনতে পারেন।

(২) মেমোরি / র‌্যাম কত জিবি নিবেন?

র‌্যাম কম্পিউটারের একটি বিশেষায়িত স্টোরেজ যা অস্থায়ী তথ্য রাখার জন্য প্রোগ্রাম গুলো ব্যবহার করে। আপনার কম্পিউটারে যদি র‌্যাম বেশি না হয় তাহলে প্রোগ্রাম গুলো অনেক স্লো কাজ করবে।

কম্পিউটারের জন্য ৪ গিগাবাইট র‌্যাম অনেক ভালো কাজের। তবে, আপনি যদি একজন গেমার বা গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে কম্পিউটার কিনতে চান তাহলে ৮ গিগাবাইট র‌্যাম ব্যবহার করলে ভালো হবে।

(৩) প্রসেসর বা সিপিইউ (CPU)

প্রসেসর বা CPU হলো কম্পিউটারের প্রধান জিনিস। কম্পিউটারের সকল কাজ কর্মগুলো এর মাধ্যমে করে। CPU কে বলা হয় Central Processing Unit.

জনপ্রিয় প্রসেসর তৈরি করা দুইটি কোম্পানি হলো IntelAMD. প্রসেসরের ক্লক স্পিড যত বেশি হবে, তত প্রসেসরের প্রসেসিং ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

কোর প্রসেসর (core processer) গুলোর মধ্যে উন্নত ও ভালো প্রসেসর হলে core i3, core i5, core i7. Core i সিরিজের প্রসেসর গুলো অনেক ভালো তবে এর দাম বেশি।

(৪) ভিডিও কার্ড

আপনি যদি কম্পিউটারে গেম না খেলেন বা থ্রিডি (3D) বিকাশ না করেন তাহলে ভিডিও কার্ড নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। আবার আপনি যদি গেমিং করতে চান বা 3D বিকাশ করতে চান, সেক্ষেত্রে কম্পিউটারের জন্য ভিডিও কার্ড খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

(৫) মনিটর (Monitor)

মনিটর কম্পিউটারের প্রধান আউটপুট। ভালো ব্র্যান্ডের মনিটর কোম্পানি গুলো হলো – Samsung, HP, LG, Asus, Dell ইত্যাদি।

মনিটর কেনার সময় আপনি দুই ধরনের মনিটর পাবেন যেমন – LCD (Liquid Crystal Display) বা LED (Light Emitting Diode).

LCD মনিটর গুলো স্কয়ার ও ওয়াইড স্ক্রিন সাধারণত দুই ধরনের হয়। আপনার প্রয়োজনীয় স্কিন সাইজ অনুযায়ী আপনি মনিটর কিনতে পারবেন।

(৬) কীবোর্ড 

কম্পিউটারে ব্যবহৃত জিনিস গুলোর মধ্যে কীবোর্ড অন্যতম। সাধারণ কম্পিউটার ব্যবহারকাীদের জন্য যেকোনো একটি কীবোর্ড ব্যবহার করতে পারবেন।

কিন্ত, আপনি যদি কম্পিউটার গেমার হয়ে থাকেন তাহলে আমি পরামর্শ দিবো গেমকে আকর্ষনীয় করার জন্য একটি গেমিং কীবোর্ড ব্যবহার করার জন্য।

শেষ কথা 

আজকে আমরা জানলাম ভালো কম্পিউটার চেনার উপায় গুলো সম্পর্কে। আপনি যদি একটি কম্পিউটার কিনতে চান, তাহলে কম্পিউটার কেনার আগে উপরের বিষয় গুলো জেনে নেওয়া উচিত।

আজকের আর্টিকেল সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে নিচের কমেন্টে লিখে জানাবেন এবং লেখাটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap