রিং আইডি দিয়ে ইনকাম | ring id থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়

0
107
রিং আইডি দিয়ে ইনকাম | ringid থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়
রিং আইডি দিয়ে ইনকাম | ringid থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায়

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম – রিং আইডি হলো ফেসবুকের মতো একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম হিসাবে ধরা হয়। ringid তে বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের সুযোগ সুবিধা থাকার কারণে দিন দিন অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

রিং আইডি সস্পর্কে আপনি যদি এখানে না জেনে থাকেন, তাহালে আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ুন। তাহালে চলুন নিচে থেকে জেনে আসি রিং আইডি সফটওয়্যার সম্পর্কে। 

রিং আইডি (ring id) কি? (what is ring id)

রিং আইডি হলো কানাডার মন্ট্রিয়েল সিটিতে অবস্থিত রিং ইনকর্পোরেশন দ্বারা পরিচালিত একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। এটা তৈরি করেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত কানাডার প্রাবাসী আইরিন ইসলাম এবং শরিফ ইসলাম এর যৌথ উদ্যোগে।

একজন ব্যবহারকারী ring id apps ব্যবহার করে সারা বিশ্বে যোগাযোগ করতে পারবেন। মূলত রিং আইডি এমন একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম যার মাধ্যমে একজন ব্যবহারকারী বিনামূল্যে কল, মেসেস, স্টিকার সহ গেপন চ্যাট করতে পারবেন।

২০১৫ সালের জুলাই মাস থেকে রিং আইডির যাত্রা শুরু হয়। এটার জনপ্রিয় হওয়ার কারণ হলো এর গোপন চ্যাট বার্তা। এই গেপন চ্যাট বার্তা নিদিষ্ট সময়ের পরে অদৃশ্য হয়ে যায়।

রিং আইডি ব্যবহার করে ব্যবহারকারীগণ সময় নির্ধারণ করে গেপন ছবি, ভিডিও, অডিও পাঠাতে পারবে। যা পাঠক মাত্র একবার দেখতে পাবেন। আবার আপনি সরাসরি চ্যাটের লিস্ট বন্ধ করে দিতে পারবেন।

ring id খোলার নিয়ম | কিভাবে রিং আইডি একাউন্ট খুলবেন

Ring ID একাউন্ট খোলার জন্য প্রথমে আপনাকে গুগল প্লেস্টর থেকে রিং আইডি সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে হবে। তাছাড়া, আপনি এই লিংকে ক্লিক করে অ্যাপ ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

ring id

ধাপ – ১: ডাউনলোড করার পরে প্রথমে ring id অ্যাপটি ওপেন করুন। ওপেন করার পরে উপরে ছবির মতো একটি পেজ দেখতে পাবেন। সেখান থেকে “English” অপশনে ক্লিক করে “Continue” করুন।

ধাপ – ২: এবার আপনাকে একাউন্ট খোলার জন্য মোবাইল নম্বর দেওয়া জন্য বলা হবে। আপনি যদি বাহিরের কোনো দেশে থাকেন তাহালে অবশ্যই সেই দেশের মোবাইল নম্বর কোড সিলেক্ট করে নিবেন।

আমি বাংলাদেশ থেকে একাউন্ট খুলছি এর জন্য +880 সিলেক্ট করেছি। এবার মোবাইল নম্বর দিয়ে নিচে থাকা “send code” অপশনে ক্লিক করুন। ছবি আপনারা যেমনটা দেখতে পাচ্ছেন।

ধাপ – ৩: কিছু সময়ের মধ্যে আপনার মোবাইল নম্বরে চার (৪) ডিজিটের একটি কোড চলে আসবে। আপনি কোড নম্বরটি নিদিষ্ট স্থানে বসিয়ে “next” অপশনে ক্লিক করুন।

ধাপ – ৪: এবার আপনাকে ring id এর প্রোফাইল নাম সিলেক্ট করার জন্য বলা হবে। আপনি নিজের সম্পর্ন নাম লিখে “next” অপশনে ক্লিক করুন। 

ধাপ – ৫: পরের পেজে পাসওয়ার্ড সেট করার জন্য বলা হবে। আপনি যখন পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করবেন তখন সর্বনিম্ন ৮ ডিজিটের পাসওয়ার্ড দিবেন। আর নিজের পাসওয়ার্ড স্টংক করার জন্য abcd1234 এমন পাসওয়ার্ড সিলেক্ট করুন।

ধাপ – ৬: Congratulations! আপনার রিং আইডি খোলার কাজ সম্পর্ন হয়েছে। এবার আপনি “ok” বাটুনে ক্লিক করুন। এবার আপনাকে রেফার নম্বর দেওয়া জন্য বলা হবে। 

মনে রাখবেন, আপনি যদি 31103489 এর রেফার নম্বর দেন, তাহালে ৫০ টাকা বোনাস পাবেন। তাই এই রেফার নম্বরটি অবশ্যই ব্যবহার করবেন।

ধাপ – ৭: এবার আপনি ring id এর হোমপেজ দেখতে পাবেন। এখানে আপনাকে আরো বিভিন্ন সেটিং (setting) গুলো ঠিক করতে হবে। এর জন্য হোমপেজ এর উপরে বাম পাশে সেটিং (setting) অপশনে ক্লিক করুন।

ring id account setting

এবার আপনি নিচের দুই সেটিং ঠিক করুন

Profile – এখানে আপনার আইডির profile picture, cover photo, name, birthday, current city, hime city, gender সহ নিচের আরো প্রয়োজনীয় বিষয় গুলো ঠিক করতে হবে।

Account – এখান থেকে আপনি আইডির পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারবেন। এবং নিরাপত্তার জন্য recovery মোবাইল নম্বর ও email address যুক্ত করতে পারবেন।

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম করার উপায়

রিং আইডিতে আপনি টাকা ইনভেস্ট করে ইনকাম করার পাশাপাশি রেফার করে ও টাকা আয় করতে পারবেন। রিং আইডি আল্প কিছু দিনের মধ্যে অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

এছাড়া রিং আইডি এজেন্ট হয়ে আনলিমিটেড ইনকাম করতে পারবেন। এখান থেকে আপনি তিনটি উপায় টাকা আয় করতে পারবেন।

(১) রেফার করে ইনকাম

আপনি যদি রিং আইডি থেকে আপনার কোনো বন্ধুকে রেফার করতে পারেন, তাহালে আপনি পাবেন ২০ টাকা কমিশন। আর যিনি আপনার রেফার কোড 31103489 এটা ব্যবহার করবেন তিনি পাবেন সাথে সাথে ৫০ টাকা বোনাস।

এভাবে আপনি যত জন বন্ধুকে রেফার করতে পারবেন ততই বেশি ইনকাম করতে পারবেন। আপনার যদি ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক আইডি / পেজ থাকে, তাহালে সেখানে রিং আইডি বিষয় কনটেন্ট লিখে টাকা আয় করতে পারবেন।

আমি যেমন ring id income করার জন্য আমার এই ওয়েবসাইটে ring id aps নিয়ে একটি কনটেন্ট লিখেছি।

(২) ইনভেস্ট (invest) করে ইনকাম

Ring ID apps এ একটা সিস্টেম চালু আছে। এখানে আপনি কয়েক হাজার টাকা ইনভেস্ট করে ইনকাম করতে পারবেন। এখান থেকে আপনি দুইটি প্যাকেজে ইনভেস্ট করে ইনকাম করতে পারবেন।

ইনভেস্টমেন্ট প্যাকেজ হলো,

  • সিলভার মেম্বারশীপ
  • গোল্ড মেম্বারশীপ

সিলভার মেম্বারশীপ

এই মেম্বারশীপে আপনাকে ইনভেস্ট করতে হবে ১২০০০ টাকা। এখান থেকে আপনাকে প্রতিদিন ৫০ টি ভিডিও দেখার কাজ করতে হবে। প্রতিটা ভিডিও দেখতে হবে ১০ থেকে ২০ সেকেন্ড। 

প্রত্যেক ভিডিও দেখার পরিবর্তে আপনাকে ৫ টাকা করে দেওয়া হবে। এখন আপনি যদি প্রতিদিন ৫০ টি ভিডিও দেখে ৫ টাকা করে আয় করেন, তাহলে ১ দিনে আয় করতে পারবেন ২৫০ টাকা এবং প্রত্যেক মাসে আয় করতে পারবেন ৭৫০০ টাকা।

গোল্ড মেম্বারশীপ

গোল্ড মেম্বারশীপে আপনাকে ইনভেস্ট করতে হবে ২২০০০ টাকা। এখানে প্রতিদিন ১০০ টি ভিডিও দেখার কাজ করতে হবে। প্রতিটা ভিডিও দেখতে হবে ১০ থেকে ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে।

প্রতিটি ভিডিও এড দেখার পরিবর্তে আপনাকে ৫ টাকা করে দেওয়া হবে। দিনে সর্বচ্ছ ১০০০ টি ভিডিও এড দেখে আয় করতে পারবেন ৫০০ টাকা। মানে প্রতিমাসে আয় হবে ১৫০০০ টাকা।

(৩) এজেন্ট হয়ে ইনকাম

রিং আইডি সম্পর্কে আপনার যদি ভালো জ্ঞান থাকে, তাহালে যারা নতুন ইউজার রয়েছে তাদের বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের উত্তর দিতে পারলে গ্রহকগন আপনাকে ভোট দিবে।

আপনি যদি ভালো ভালো উত্তর লিখেন তাহালে ring id এর পক্ষ থেকে আপনাকে টাকা দেওয়া হবে। এই ভাবে আপনি আনলিমিটেড ইনকাম করতে পারবেন।

রিং আইডি থেকে টাকা তোলার নিয়ম | রিং আইডিতে ক্যাশ আউট কিভাবে করে

ধাপ – ১: রিং আইডি থেকে টাকা তোলার জন্য প্রথমে আপনার ring id অ্যাপে প্রবেশ করুন। এবার “Community jobs” এই অপশনে ক্লিক করুন।

ধাপ – ২: এবার “earn cahs” অপশনে ক্লিক করুন  বা আপনার আয় করা টাকার উপর ক্লিক করুন।

ধাপ – ৩: এবার “cash out” অপশনে ক্লিক করার পরে bkash, rocket, nagad, agent অপশন গুলো দেখতে পাবেন। যেহেতু আমারা এজেন্ট অপশন থেকে ক্যাশ আউট করবো, সেহেতু agent অপশনে ক্লিক করবো।

ধাপ – ৪: পরের পেজে আপনি কত টাকা ক্যাশ আউট করবেন সেটা সিলেক্ট করে আপনার বিকাশ, রকেট, নগদ মোবাইল নম্বর দিয়ে transaction method সিলেক্ট করে send request অপশনে ক্লিক করুন।

ধাপ – ৫: এবার আপনি এজেন্ট সিলেক্ট করতে হবে। এখানে এজেন্ট লিস্টে অনেক গুলো এজেন্ট দেখতে পাবেন। সেখান থেকে আপনার ইচ্ছে মতো এজেন্টকে সিলেক্ট করে conform করুন।

আপনার ক্যাশ আউট সম্পর্ন হয়েছে এমন একটি পেজ দেখাবে। আর আপনি যে এজেন্টের কাছে ক্যাশ আউট করেছেন সেই এজেন্টের সাথে চ্যাটিং করে কথা বলতে পারেন।

ক্যাশ আউট করার কয়েক ঘন্টার মধ্যে আপনার একাউন্টে টাকা চলে আসবে। তাছাড়া আপনি যদি এজেন্ট বাদে সরাসরি রিং আইডি কোম্পানি কাজ থেকে টাকা ক্যাশ আউট করতে চান, তাহালে কয়েক দিন সময় লাগবে। 

এজন্য আমি আপনাকে পরামর্শ দিবো আপনারা সব সময় এজেন্টদের কাছ থেকে টাকা ক্যাশ আউট করবেন। এতে দ্রুত টাকা পেয়ে যাবেন। তবে, এজেন্টদের কাছ থেকে টাকা ক্যাশ আউট করলে ০.৪% কমিশন কেটে নিবে।

রিং আইডি রেফার করার নিয়ম

Ring id থেকে রেফার করার নিয়ম হলো আপনি একাউন্ট খেলার পরে আপনার বন্ধুদের কাছে আপনি ring id apps download করার জন্য একটি লিংক পাঠাতে পারবেন।

তাছাড়া, আপনার কোনো বন্ধু যদি আপনার রেফার কোড ব্যবহার করে তাহালে তিনি ৫০ টাকা এবং আপনি পাবেন ২০ টাকা বোনাস। আমার এই রেফার কোড ৩১১০৩৪৮৯ ব্যবহার করলে আপনি পাবেন ৫০ টাকা বোনাস।

আজকে আমরা কি জানলাম

তাহালে, বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম “রিং আইডি দিয়ে ইনকাম কিভাবে করে” এর ব্যাপারে। আমার লেখা আর্টিকেলটি কেমন লাগলো সেটা অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন এবং ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে