হার্ডডিস্ক কি? কম্পিউটার হার্ডডিস্ক কত প্রকার ও কি কি?

0
164
হার্ডডিস্ক কি কম্পিউটার হার্ডডিস্ক কত প্রকার ও কি কি
হার্ডডিস্ক কি কম্পিউটার হার্ডডিস্ক কত প্রকার ও কি কি

আপনারা হয়তো জানেন কম্পিউটার বিভিন্ন উপাদান দ্বারা তৈরি করা হয়। আর এই উপাদান গুলোর মধ্যে একটি হলো হার্ডডিস্ক। যারা হার্ডডিস্ক কি (what is hard disk in bangla) এই সম্পর্কে জানেন না, আজকের আর্টিকেলটি তাদের জন্য।

কারণ এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি হার্ডডিস্কের তথ্য বিস্তরিত ভাবে আলোচনা করবো। তাই সম্পর্ন লেখাটি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

হার্ডডিস্ক এর একটা উদারহণ দিলে আপনারা পরিস্কার ভাবে বুঝতে পারবেন। মনে করুন, আপনার ঘরে একটি আলমারি রয়েছে। আর সেই আলমারিতে আপনার সমস্ত জিনিসপত্র গুলো আলমারিতে রাখেন।

ঠিক একই ভাবে কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক হলো আপনার ঘরের আলমারির মতো। যেখানে কম্পিউটারের সমম্ত ডাটা, তথ্য গুলো এই Hard Disk এ সংরক্ষণ করে রাখা যাবে।

Hard Disk এ কম্পিউটারের সকল ছবি, ভিডিও, অডিও, ফাইল, ডকুমেন্ট, ফাইল সহ সব কিছু এই হার্ডডিস্ক এ সেব হয়ে থাকবে। যখন আমরা কম্পিউটার বন্ধ করে দিবো, তখন কম্পিউটার হার্ডডিস্ক আমাদের সকল তথ্য গুলো সেব করে রাখবে।

আবার যখন আমরা কম্পিউটার চালু করবো তখন কম্পিউটার হার্ডডিস্ক এ সংরক্ষিত তথ্য গুলো আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিবে। এভাবে hard disk তথ্য সংরক্ষিত করে রাখে।

হার্ডডিস্ক কি? (What is Hard Disk in bangla)

হার্ডডিস্ক বা হার্ড ড্রাইভ হলো কম্পিউটারের ডাটা, তথ্য সংরক্ষণ করে রাখার যন্ত্র। যেখানে কম্পিউটারের তথ্য, ডাটা জমা রেখে পরবর্তী সময়ে আমরা সেটাকে আবার দেখতে বা পড়তে পারি।

হার্ডডিস্কে সমকেন্দ্রিক একাধিক চাকতি থাকে, যাকে প্লেটারস বলা হয়। এটাকে চৌম্বকীয় ধাতুর দিয়ে আচ্ছাদিত থাকে এবং প্লেটারস গুলো চৌম্বকীয় মাথার সাথে জোড়া দেওয়া থাকে।

সহজে হার্ডডিস্ক কাকে বলে?

সহজ ভাবে বলতে গেলে হার্ডডিস্ক হলো কম্পিউটারের মেমিরি। যেখানে বিভিন্ন ধরনের ডাটা, তথা জমা থাকে। আমরা মোবাইলে যেমন মেমিরি কার্ড ব্যবহার করি, ঠিক তেমনি কম্পিউটারের মেমিরি হলো হার্ডডিস্ক।

আশাকরি, বুঝতে পারছেন Hard disk কি বা কাকে বলে। এবার চলুন নিচে থেকে এই বিষয়ে আরো বিস্তরিত কিছু জেনে আসি।

হার্ডডিস্ক কত প্রকার ও কি কি?

১৯৫৬ সালে প্রথম হার্ডডিস্ক তৈরি করেছিলো Reynold এবং B Jonson. তারা দুইজন IBM কোম্পানিতে কাজ করতো। বলতে গেলে হার্ডডিস্কের ইতিহাস অনেক পুরাতন। 

তবে, আগের তুলনায় বর্তমানের hard disk গুলোতে অনেক পরিবর্তন এসেছে। এই সময়ের হার্ডডিস্ক গুলোকে ৪ ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যথাঃ

  1. PATA Hard Disk
  2. SATA Hard Disk
  3. SCSI Hard Disk
  4. SSD Hard Disk

চলুন নিচে থেকে আমরা এই বিষয় সম্পর্কে জেনে আসি।

PATA Hard Disk

PATA এর মানে হলো parallel advanced technology attachment. এটা অনেক পুরোনো একটি হার্ডডিস্ক যাকে তৈরি করতে অনেক সময় লেগেছে। ১৯৮৫ সাল থেকে ১৯৮৭ সালের মধ্যে এটাকে তৈরি করা হয়েছিলো।

SATA Hard Disk

SATA এর মানে হলো, serial advanced technology attachment. pata এর তুলনায় sata hard disk অনেক ভালো ছিলো এবং স্পিড ও অনেক বেশি ছিলো। এটার ডাটা স্পিড ছিলো ৫০০MB/s. আর এটাতে ছোট ছোট ক্যাবল ব্যবহার করা হয়েছিলো।

SCSI Hard Disk

SCSI এর মানে হলো, small computer system interface. এই হার্ডডিস্ক এর মাধ্যমে অনেক দ্রুত ডাটা ট্রান্সফার হতো। এটার ডাটা ট্রান্সফার স্পিড হলো ৭০০MB/s.

SSD Hard Disk

SSD এর মানে হলো, solid state drive. বর্তমান সময়ে আমরা যে হার্ডডিস্ক গুলো ব্যবহার করি সেটাই হলো SSD.

হার্ডডিস্ক কিভাবে কাজ করে?

আমরা মূলত হার্ডডিস্ক ব্যবহার করি আমাদের ডাটা বা তথ্য গুলো সংরক্ষন করে রাখার জন্য। এবং সেই সংরক্ষিত ডাটা গুলো পরবর্তীতে যেন আবার আমরা ব্যবহার করতে পারি।

কিন্ত, এই ডাটা বা তথ্য গুলো হার্ডডিস্কে কিভাবে সংরক্ষণ থাকে? বা হার্ডডিস্ক কিভাবে কাজ করে?  চলুন নিচে থেকে এই সম্পর্কে জেনে আসি।

হার্ড ডিস্কে আমাদের ডাটা গুলো চির পরিচিতি রূপে জমা থাকে না। এগুলো হার্ড ডিস্কের ম্যাগনেটিক প্যাটার্নে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভাগে গেইন হিসাবে জমা থাকে। আর এই গেইন গুলোকে চৌম্বক ক্ষেত্র  তৈরি করে ডাটা গুলোকে জমা থাকে।

মনে রাখবেন কম্পিউটারের ডাটা বা তথ্য মানে 0 এবং 1 এর মধ্যে খেলা। আর এটাকে আমরা বাইনারি পদ্ধতি বলে থাকি। আমাদের ডাটা গুলো কেবল মাত্র কম্পিউটারের কাছে 0 এবং 1 এর মাধ্যমে কিছু সাজানো কোডের মাধ্যমে সংরক্ষিত থাকে।

এবার অনেকের মনে প্রশ্ন তৈরি হতে পারে, তাহালে বিদ্যুৎ সংযোগ না হলে কিভাবে 0 এবং 1 এর মাধ্যমে ডাটা গুলো সংরক্ষিত থাকে। আসলে এখানে চৌম্বক ক্ষেত্রের মাহাত্ম্য কাজ করে। এখানে বিদ্যুৎ সংযোহ না থাকলে ও এর মাধ্যমে ধরে রাখতে পারে।

চৌম্বক ক্ষেত্রের বাম দিকে যদি 0 হয় তাহালে ডান দিকে হবে 1. এবার প্রশ্ন হলো এই বাইনারি কোড গুলো কিভাবে সংরক্ষিত হয়? প্রথমে বাইনারি সংখ্যা দুইটাকে ডিক্সের চৌম্বক ক্ষেত্রের দিকে পরিবর্তনের জন্য বিদ্যুৎ প্রবাহ করা হয়।

এবং একটি ইলেক্ট্রো ম্যাগনেটের মাধ্যমে কোড গুলোকে দিক পরিবর্তন করার জন্য ডিক্সে পাঠানো হয়। এভাবে সব গুলো বিটকে ডিক্সে বসানোর পর একটি ফাইল সংরক্ষণ করা হয়। আর সকল প্রক্রিয়া গুলো সম্পর্ন হয় কয়েক মিলি সেকেন্ডের মধ্যে।

হার্ডডিস্ক (Hard Disk) এর বৈশিষ্ট্য

  • হার্ডডিস্ক কম্পিউটারের সুরক্ষিত অবস্থায় থাকে যার ফলে নষ্ট হয় কম।
  • এটার ধারণ ক্ষমতা অনেক বেশি।
  • এটা একটি দ্রুত গতিসম্পন্ন স্টোরেজ ডিভাইস।
  • এটা অনেক টেকসই এবং মজবুত।
  • হার্ড ডিস্ক সাধারণত কম্পিউটারের মধ্যে থাকে।
  • এর মধ্যে দীর্ঘদিন ডাটা গুলো জমা রাখা যায়।
  • সামান্য তাপ ও আর্দ্রতায় হার্ড ডিস্ক নষ্ট হয় না।
  • এটার এক্সেস টাইম ফ্লাপি ডিস্কের চেয়ে অনেক কম।
  • এটার ডাটা সংরক্ষণ করার ক্ষেত্রে ফ্লপি ডিস্কের তুলনায় অনেক বেশি নির্ভরযোগ্য।

হার্ডডিস্ক এর অসুবিধা

  • এটা নষ্ট হলে সহজে ঠিক করা যায় না।
  • কম্পিউটারের হার্ডডিস্ক বা ল্যাপটপের হার্ডডিস্ক এর দাম অনেক বেশি।
  • এটাকে ফ্লপি ডিস্কের মতো যখন তখন ড্রইভ থেকে খোলা সম্বভ হয় না।

আজকে আমরা কি জানলাম

তাহালে, বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম হার্ডডিস্ক কি এবং কম্পিউটার হার্ডডিস্ক কত প্রকার, কিভাবে কাজ করে। আশাকরি আমার লেখা হার্ডডিস্ক ড্রাইভ (HDD) কি সেটা সহজে বুঝতে পারবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে