Blogging করে ইনকাম করার উপায় গুলো কি কি

2
157
Blogging করে ইনকাম করার উপায় গুলো কি কি
Blogging করে ইনকাম করার উপায় গুলো কি কি

আমি আগের আর্টিকেলে বলেছি ব্লগিং কি? আর আজকে বলবো কিভাবে ব্লগিং করে ইনকাম করা যায় সেই সম্পর্কে। আপনি কি লেখালেখি করতে ভালো লাগে তাহালে আপনি ব্লগিং করে আয় করতে পারবেন। কারণ অনলাইন ইনকাম করার সব চেয়ে সহজ এবং জনপ্রিয় উপায় হলো blogging. অনেকে আবার জানেন না ব্লগিং কি? আসলে অনলাইনে লেখালেখি করে ইনকাম করাকে ব্লগিং বলে।

আপনিও চাইলে একটি ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে নিয়মিতভাবে আর্টিকেল পাবলিশ করে টাকা আয় করতে পারবেন। আপনার ওয়েবসাইটে যখন নিয়মিত ভিজিটরসা কন্টেন্ট গুলো পড়তে আসবে তখন আপনি টাকা আয় করতে পারবেন। কিন্ত আপনার ব্লগে মোটামোটি ভালো পরিমানে ট্রাফিক আসতে হবে। তাহালে ব্লগ থেকে ইনকাম সম্ভব। চলুন কি কি উপয়ে ইনকাম করা যায় সেটা নিচে থেকে জেনে আসি।

ব্লগিং (blogging) করে ইনকাম করার উপায় গুলো

(১) এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

ব্লগ ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করার জনপ্রিয় একটি মাধ্যম হলো এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। আপনি কিভাবে এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে করে ব্লগ থেকে ইনকাম করবেন। চলুন একটা উদাহরণ দেয়। মনে করুন আপনার মোবাইল টফিকের উপর একটি ওয়েবসাইট রয়েছে। সেখানে আপনি নতুন নতুন মোবাইল সম্পর্কে আর্টিকেল পাবলিশ করেন।

অবশ্যই পড়ুন – কিভাবে ব্লগিং শুরু করবো

এখন আপনি যদি এ্যাফিলিয়েট করে নতুন মোবাইলের উপর কন্টেন্ট লিখেন এবং আপনার কন্টেন্ট পড়ে কেউ যদি মোবাইল কিনে থাকে তাহালে আপনি নিদিষ্ট পরিমানে কমিশন পাবেন। এভাবে প্রতিটা প্রডাক্ট নিয়ে আপনি এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবেন। আপনি হয়তো অ্যামাজন কোম্পানির নাম শুনেছেন। তাদের হাজার হাজার প্রডাক্ট রয়েছে এ্যাফিলিয়েট করার জন্য। আপনি যদি তাদের প্রডাক্ট নিয়ে ব্লগে এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেন তাহালে ভালো পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

(২) গুগল এডসেন্স

আপনি ব্লগে বিভিন্ন কোম্পানির বিজ্ঞাপন বসিয়ে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করতে পারবেন। বর্তমানে ব্লগিং করে আয় করার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো এডসেন্স। আপনি যখন আমার এই আর্টিকেলটি পড়ছেন তখন দেখতে পাচ্ছেন গুগল থেকে বিভিন্ন কোম্পানির বিজ্ঞাপন দেখানো হচ্ছে।  এই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আপনি আয় করতে পারবেন। কিভাবে ব্লগে এডসেন্স যুক্ত করবেন সেটা জানতে নিচের আর্টিকেলটি পডুন।

অবশ্যই পড়ুন – গুগল এডসেন্স পাওয়ার উপায়

(৩) স্পন্সর

আপনি নিজের ব্লগে বিভিন্ন কোম্পানি প্রচারের জন্য তাদের বিজ্ঞাপন গুলো দেখাতে পারেন। এমন অনেক প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানি রয়েছে যারা ওয়েবসাইটের স্পন্সর হয়ে থাকে। যেমন টেন মিনিট স্কুলের স্পন্সর হলো রবি সিম কোম্পানি। এছাড়া আরো অনেক কোম্পানি আছে যারা ওয়েবসাইটের স্পন্সর হয়ে থাকে। কিন্ত এমন স্পন্সর পাওয়ার জন্য অবশ্যই আপনার ব্লগে ভালো পরিমানে ভিজিটরস নিয়ে আসতে হবে।

(৪) ব্যাকলিংক

ওয়েবসাইটের জন্য ব্যাকলিংক খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ব্যাকলিংক থেকে একটি ব্লগে প্রচুর সংখ্যক ট্রফিক আসে। আপনার যদি ভালো একটি ওয়েবসাইট থাকে তাহালে backlink সেল করে ইনকাম করতে পারবেন। এক একটি ব্যাকলিংক ৫০ ডলার থেকে ৩০০ ডলার পর্যন্ত সেল হয়ে থাকে। তবে, আপনার ওয়েবসাইটে সেই পরিমানে ভিজিটরস থাকা লাগবে। তাহালে আপনি ব্যাকলিংক বিক্রয় করে ইনকাম করতে পারবেন।

(৫) ব্লগ সাইট সেল

অনেক ফ্রিল্যান্সার বা প্রতিষ্ঠান আছে যারা ডোমেন হোস্টিং কিনে ওয়েবসাইট তৈরি করে সেল করে দেয়। আমি নিজেও ব্লগ সাইট তৈরি করে গুগল এডসেন্স এপরুভ করে সেল করি। এডসেন্স যুক্ত সাইট সেল করে আপনি প্রতিমাসে ভালো পরিমানে ইনকাম করা যায়। আপনি যদি Google AdSense যুক্ত ওয়েবসাইট কিনতে চান তাহালে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

আজকে আমরা কি শিখলাম

বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম blogging কি এবং ব্লগিং করে ইনকাম করার উপায় গুলো কি কি। Blogging সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহালে নিচে কমেন্ট জানান এবং আর্টিকেলটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

2 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে