ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় (সেরা গাইড – 2022)

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায়: কিভাবে ইউটিউব থেকে আয় করতে হয় (How to earn money from YouTube) এই বিষয়ে বিস্তরিত ভাবে জানবো এই আর্টিকেল থেকে। আপনি হয়তো অবশ্যই জানেন একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি টাকা ইনকাম করা একটি লাভজনক উপায়।

তাছাড়া, ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করার উপায় গুলো অনেক সহজ। তবে, প্রথমে যেকোনো ব্যবসা বা কাজের মতো এখানে আপনাকে প্রচুর পরিমানে সময় দিতে হবে।

এখান থেকে কিছু বছর আগে ইউটিউব থেকে ইনকাম করার ব্যাপারটা বেশ সহজ ছিলো। কিন্ত বর্তমানে ২০২১ সালে অন্য যেকোনো ক্যারিয়ারের মতো ইউটিউব ক্যারিয়ার এর মধ্যেও প্রচুর সংখ্যক প্রতিযোগিতা তৈরি হয়েছে।

এজন্য বর্তমানে YouTube channel থেকে টাকা আয় করাটা তেমন সহজ ব্যাপার না। তবে, মন দিয়ে কাজ করলে অনেক সহজে YouTube থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

আমরা অনেকে জানি সারা বিশ্বের হাজার হাজার মানুষরা ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রতি মাসে হাজার হাজার লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করছে। সঠিক ভাবে কাজ করতে পারলে আপনিও অনলাইন ইনকাম করার সেরা উপায় ব্যবহার করে প্রচুর পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

তাছাড়া ইউটিউবের মতো ব্লগিং (blogging) করেও আপনারা অনলাইনে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে, অনলাইন ব্লগ থেকে টাকা ইনকাম করার চেয়ে সহজে ইউটিউব থেকে আয় করাটা অনেক সহজ।

কেননা, YouTube এর ক্ষেএে আপনি কেবল কিছু সংখ্যক ভালো মানের ভিডিও তৈরি করে নিজের YouTube channel এ আপলোড করে ইনকাম করতে পারেন। এখানে টাকা আয় করার পাশাপাশি নিজেকে একজন বিখ্যাত ব্যাক্তি বানিয়ে নিতে পারবেন।

বর্তমানে অনেক পড়াশোনা করা মানুষরা চাকরি ছেড়ে নিজে YouTube channel তৈরি করে ঘরে বসে চাকরির চেয়ে অধিক পরিমানে টাকা আয় করছে। এখন আপনি ও যদি চিন্তা করেন, কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা যায় তাহালে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে সম্পর্ন উত্তর পেয়ে যাবেন।

কিভাবে YouTube থেকে টাকা আয় করা যায়?

যখন online income করার কথার আসছে তখন আপনার কাছে লাভজনক দুইটি উপায় রয়েছে।

  • Blogging
  • YouTube

বর্তমানে অনেক মানুষরা YouTube এর তুলনায় blogging করে টাকা ইনকাম করতে পছন্দ করছে। কারণ তারা মনে করছে গুগল এডসেন্স থেকে অধিক পরিমানে ভালো ইনকাম করা সম্ভব। তাছাড়া অনেকে আবার ভিডিও তৈরি করার চেয়ে আর্টিকেল লেখার কাজকে সহজ বা পছন্দ মনে করেন।

কিন্ত, যখন কথা আসছে ইউটিউব থেকে ইনকাম করার, YouTube এর অবশ্যই কিছু লাভ রয়েছে। এখানে আপনি নিজের পছন্দের কিছু বিষয়ের উপর ভিডিও কন্টেন্ট তৈরি করে সেগুলোকে নিজের চ্যানেলে আপলোড করলে হয়ে গেল।

এবার নিজের YouTube channel টিকে monetization চালু করে, আপলোড করা ভিডিও গুলোতে বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ইনকাম করতে পারবেন। আপনি YouTube থেকে Blogging এর তুলনায় অধিক পরিমানে বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কারণ, প্রতিটি Text content এর তুলনায় video content দেখতে মানুষরা বেশি পছন্দ করে। যে কারণে আপনার আপলোড করা ভিডিও গুলো অধিক পরিমানে মানুষরা দেখবে এবং ইনকাম হবে। এবার আপনি হয়তো ভাবছেন ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায়? এর সম্পর্ন প্রক্রিয়াটি কি?

Steps to earn money from YouTube channel

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার উপায় সহজ মনে হলেও শুরু থেকে অনেক বেশি নজর দিয়ে কাজ করতে হবে। আর এই প্রতিটি বিষয়ে আমি নিচে এক এক করে বলে দিয়েছি।

# প্রথমে আপনাকে YouTube.com এই ওয়াবসাইটে গিয়ে নিজের Gmail account / ID ব্যবহার নতুন একটি YouTube channel create করতে হবে।

# নিজের চ্যানেলের ছোট সুন্দর একটি নাম দিতে হবে। এমন নাম দিবেন যাতে শুনলে বুঝা যায় আপনি কোন বিষয়ে ভিডিও আপলোড করবেন।

# এবার YouTube channel কে আকর্ষণীয় ও প্রফোসানাল করার জন্য channel art, channel logo, channel details দিতে হবে।

# আপনার চ্যানেলের ভিডিও গুলো আকর্ষণীয় করার জন্য ৩-৪ সেকেন্ডের Intro video বানাতে হবে।

# এবার আপনি ভালো কোয়ালাটির ভিডিও তৈরি করবেন যেনন মানুষরা দেখে কাজের মনে করে।

# ভিডিও তৈরি করার পরে ভিডিও গুলো চ্যানেলে আপলোড করার সময় video title, description, tags, thumbnail দিয়ে পাবলিশ করুন।

# Public করা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে শেয়ার করুন।

# এভাবে ভিডিও পাবলিশ করতে করতে আপনার YouTube videos তে views এবং subscriber বাড়তে থাকবে।

সবশেষে আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যখন ভালো পরিমানে ভিউ এবং সাবস্ক্রইবার চলে আসবে, তখন আপনি বিভিন্ন উপায় ব্যবহার করে ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে পারবেন।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় গুলো কি কি?

আপনার YouTube channel এ একবার যখন ভালো পরিমানে সাবস্ক্রইবার (subscriber) হয়ে যাবে, তখন ভিডিও আপলোড করলে ভালো পরিমানে ভিউস আসতে থাকবে।

আপনি তখন থেকে নিচে দেওয়া উপায় গুলো ব্যবহার করে অনলাইন ইনকাম শুরু করতে পারবেন।

  1. Google AdSense থেকে ইনকাম
  2. Affiliate marketing থেকে আয়
  3. Sponsored videos
  4. Sell own products

#১. Google AdSense

বর্তমানে সকল ইউটিউবার রা তাদের চ্যানেল থেকে Google AdSense থেকে Income করতে চাই। এখন আপনি যদি ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে চাই তাহালে এই একই উপায় ভাবতে হবে। YouTube channel এ monetize নামে একটা অপশন রয়েছে।

এই option এ গিয়ে monetize enable করলে আপনার চ্যানেলের সকল ভিডিও গুলোতে এডসেন্সের বিজ্ঞাপন দেখানো হবে। এই ভিডিও গুলোর মাধ্যমে যত বেশি সংখ্যক মানুষরা বিজ্ঞাপন দেখবে এবং বিজ্ঞাপন ক্লিক করবে ততো বেশি ইনকাম করতে পারবেন।

তবে, মনে রাখবেন YouTube চ্যানেল থেকে AdSense monetization চালু করার জন্য তাদের নিয়ম গুলো আপনাকে ফলো করতে হবে। আমি নিয়ম গুলো নিচে উল্লেখ্য করছি।

  • আপনার চ্যানেলে ১০০০ সাবস্ক্রইবার থাকতে হবে।
  • ১ বছরের মধ্যে ৪০০০ ঘন্টা ওয়ার্চ টাইম থাকতে হবে। (চ্যানেলের সকল ভিডিও মিলে)
  • আপনি যে দেশ থেকে ইউটিউব মনিটাইজেশন (YouTube monetization) নিতে চাচ্ছেন সেখানে YouTube partner program availability থাকতে হবে।
  • আপনাকে অবশ্যই YouTube channel monetization এর দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে।

উপরের বিষয় গুলো দিকে নজর রেখে monetization apply করার পরে YouTube এর অফিসিয়াল টিম আপনার চ্যানেল টিকে রিভিউ করে দেখবে এবং তারা আপনাকে ইমেইলের মাধ্যমে তাদের সিদ্ধন্ত জানাবে।

#২. Affiliate marketing

আপনি এফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে অনেক বেশি পরিমানে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আসলে affiliate marketing হলো এমন একটি মাধ্যম যেখানে আপনি যেকোনো কোম্পানির প্রডাক্ট বা সার্ভিস গুলো বিক্রি করে কমিশন হিসাবে আয় করতে পারবেন।

মনে করুন, আপনি একটি ল্যাপটপের রিভিউ করলেন চ্যানেলে এবং description box এ ল্যাপটপটি কেনার জন্য affiliate purchase link দিয়ে দিলেন। এবার যত মানুষরা আপনার দেওয়া affiliate link থেকে purchase করবে ততো ল্যাপটপ কোম্পানি আপনাকে বেশি কমিশন দিবে।

এভাবে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আপনি বিভিন্ন কোম্পানির প্রডাক্ট গুলো বিক্রিয় করে ইনকাম করতে পারবেন। এমন অনেক YouTuber আছেন যারা affiliate marketing করে YouTube থেকে প্রচুর পরিমানে টাকা আয় করছে।

#৩. Sponsored videos

sponsored থেকে ইনকাম করার জন্য আপনার YouTube channel অনেক জনপ্রিয় হতে হবে। মানে আপনার চ্যানেলে যখন লক্ষ লক্ষ সাবস্ক্রইবার হয়ে যাবে তখন আপনার চ্যানেল জনপ্রিয় হবে।

তখন অনেক কোম্পানি তাদের প্রডাক্ট গুলো রিভিউ করার জন্য আপনাকে বলবে, আপনি সেই সকল কোম্পানি প্রডাক্ট গুলো রিভিউ করে অনলাইনে মার্কেটিং বা প্রচার করতে করবেন। এই ধরবের ভিডিও গুলোকে বলা হয় sponsored video যার বিনিময়ে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

#৪. Sell own products

আপনার নিজের যদি কোনো products বা services থাকে তাহালে সে গুলোর ভিডিও তৈরি করে নিজের চ্যানেলে পাবলিশ করতে পারেন। এতে আপনি সহজে প্রডাক্ট গুলো সম্পর্কে মানুষকে জানাতে পারবেন এবং কাস্টমার পেয়ে যাবেন।

এই প্রক্রিয়া কাজে লাগিয়ে অনেক ব্যবসায়ী তাদের পন্য মার্কেটিং করছে। যার ফলে আপনি ঘরে বসে গ্রাহক পাওয়ার সুযোগ পাবেন।

YouTube কেন লাভজনক ইনকাম মাধ্যম?

আমি আগেও বলেছি ইউটিউব হলো ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম করার সব থেকে সেরা ও অধিক লাভজনক মাধ্যম। এই কারণ গুলো হলো,

  • No investment
  • Earn money fast
  • Fast AdSense approval
  • Unlimited income
  • Work from home

#1. No investment

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে কোনো প্রকার ইনভেস্টমেন্ট করতে হবে না। আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে একটি চ্যানেল তৈরি করতে পারবেন। তবে, এখানে প্রথমে আপনাকে সময় এবং ধৈর্য ধরে কাজ করতে হবে।

আপনার কাছে যে এন্ড্রয়েড মোবাইল রয়েছে আপনি সেটা দিয়ে ভিডিও রেকার্ড করে সুন্দর ভাবে এডিটিং করে নিজের চ্যানেলে আপলোড করতে পারবেন। আর আপনি সম্পর্ন ফ্রিতে এই কাজ গুলো করতে পারবেন।

#2. Earn money fast

ইউটিউব থেতে আপনার দ্রুত সময়ের মধ্যে ইনকাম করার সম্ভবনা রয়েছে। কেননা, আমরা সবাই ভিডিও দেখতে অনেক পছন্দ করি। এজন্য ভালো মানের ভিডিও তৈরি করলে অনেক দ্রুত ভিউস এবং সাবস্ক্রইবার পাওয়ার সম্ভবনা থাকে।

আর আপনি যত দ্রুত views এবং subscriber পাবেন ততো দ্রুত নিজের চ্যানেলে থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

#3. Fast AdSense approval

ব্লগিং এর তুলনায় ইউটিউবে অনেক দ্রুত সময়ে Google AdSense approval দিয়ে থাকে। আপনি নিজের চ্যানেলের জন্য ভালো ভালো ভিডিও তৈরি করে আপলোড করলে, অনেক তাড়াতাড়ি ভালো পরিমানে views এবং subscriber পেয়ে যাবেন।

পরে আপনি YouTube monetization (AdSense) এর জন্য আবেদন (apply) করতে পারবেন। যদি আপনি তাদের সকল পলিসি গুলো মেনে কাজ করেন তাহালে দ্রুত এডসেন্স এপ্রুভাল করে দিবে।

#4. Unlimited income

YouTube এর মাধ্যমে আপনি কত টাকা আয় করতে পারবেন সেটার কোনো সীমাবদ্ধতা নেই। বর্তমানে অনেকে নিজের চ্যানেলের দ্বারা প্রতি মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করছে। মোট কথা এখানে আপনি যত বেশি কাজ করতে পারবেন ততো বেশি পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

মনে রাখবেন, YouTube থেকে ইনকাম করার মূল উপায় হলো subscriber. মানে আপনার চ্যানেলে যত বেশি সাবস্ক্রইবার থাকবে ততো বেশি ইনকাম করা সুযোগ থাকছে।

#5. Work from home

YouTube এ কাজ করার মজার ব্যাপার হলো আপনি নিজের ঘরে বা যেকোনো জায়গায় বসে কাজ করতে পারবেন। আপনি নিজের ঘরে যেকোনো পছন্দের জায়গায় গিয়ে ভিডিও তৈরি করতে পারবেন।

একই ভাবে ভিডিও এডিটিং (video editing) সহ ইত্যাদি কাজ গুলো ঘরে বসে করতে পারবেন। এখন আপনি যদি YouTube কে একটি ব্যবসা হিসাবে নিয়ে কাজ করার কথা ভাবেন তাহালে সম্পর্ন প্রক্রিয়া গুলো ঘরে বসে করতে পারবেন।

ইউটিউব চ্যানেলে থেকে অধিক টাকা আয় করার জন্য কি করবেন?

আপনি যদি YouTube success হতে চান তাহালে অবশ্যই কিছু বিষয় গুলোর দিকে নজর দিতে হবে। নিচে দেওয়া পয়েন্ট গুলোর উপর যদি আপনি মন দিয়ে কাজ করতে পারেন তাহালে সফল ইউটিউবার হতে পারবন।

আপনাকে কি কি করতে হবে,

১. আপনাকে এরকমের কিছু ভিডিও তৈরি করতে যেগুলো ইন্টারনেটে সব সময় মানুষরা সার্চ করে। যেমন- প্রযুক্তি, অনলাইন ইনকাম, কম্পিউটার, টিউটোরিয়াল ইত্যাদি।

২. ভিডিও তৈরি করার আগে আপনাকে ভিডিওর বিষয়ে keyword research করে খুঁজতে হবে। যে বিষয়ে বেশি পরিমানে সার্চ হচ্ছে সেই বিষয় নিয়ে ভিডিও তৈরি করুন।

৩. সব সময় চেষ্টা করবেন বড় ভিডিও তৈরি করতে। তবে, কমপক্ষে ৫ থেকে ১০ মিনিটের ভিডিও তৈরি করুন।

৪. ভিডিও চ্যানেলে আপলোড করার সময় অবশ্যই video title এবং video description এর মধ্যে targeted keywords ব্যবহার করুন।

৫. আপনার ভিডিওটি আকর্ষণীয় করার জন্য সব সময় সুন্দর thumbnail তৈরি করবেন। এমন ভাবে থাম্বনেইল বানাবেন যেন মানুষরা দেখলে ক্লিক করে।

৬. ভিডিও এর মধ্যে ইউজারদের অনুগ্রহ করে বলবেন তারা যেন আপনার channel subscribe করে। এতে দ্রুত চ্যানেলে সাবস্ক্রইবার বেশি হবে।

৭. আপনাকে নিয়মিত ভাবে ভিডিও তৈরি করার প্রক্রিয়া বজায় রাখতে হবে। প্রায় ২ দিন পর পর ভিডিও আপলোড করতে হবে।

৮. নিচের চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করে সেটার লিংক বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া যেমন- ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাস প্লাটফর্ম গুলোতে শেয়ার করতে হবে।

৯. কখনো ভুল করেও অন্য কারও ভিডিও, অডিও এর কোনো অংশ কপি করবেন না। মনে রাখবেন, কপিরাইট ভিডিওতে আপনি কখনো monetization পাবেন না।

কি ধরনের ভিডিও আপনি বানাতে পারেন?

আপনি যদি আমার কাছে পার্সোনাল ভাবে প্রশ্ন করে ভাই কি ধরনের ভিডিও বানাবো? তাহালে আমি আপনাকে বলবো পরামর্শ দিবো যে ভিডিও গুলো দেখে মানুষরা কাজে লাগবে এবং দেখে রুচি হবে তেমন ভিডিও তৈরি করুন।

মোট কথায় যে ভিডিও গুলো ইউসারদের আকর্ষিত করে, সেই ধরনের ভিডিও তৈরি করা অনেক লাভজনক। বর্তমানে বিভিন্ন লাভজনক বিষয় রয়েছে যেগুলোর উপর ভিডিও বানাতে পারেন।

Voice over videos: আপনি জ্ঞান, বিজ্ঞাপন এবং মজার কিছু বিষয়ে নিয়ে নিজের ভয়েস রেকার্ড করে সেগুলোর সাথে কিছু ছবি যুক্ত করে সুন্দর একটি ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। এই ধরনের ভিডিও চ্যানেলে আপলোড করতে পারেন।

Tutorial: নিজের চ্যানেলের জন্য বিভিন্ন ধরনের tutorial videos তৈরি করে পাবলিশ করতে পারেন। যেমন- অনলাইনে ইনকাম, ফ্রিল্যান্সিং টিপস, টেকনোলোজি বিষয়ে ইত্যাদি।

Review: বিভিন্ন ধরনের প্রডাক্ট, সার্ভিস, জায়গা, হোটেল ইত্যাদি বিষয়ে রিভিউ তৈরি করে চ্যানেলে Upload করতে পারেন।

Motivational: নানা ধরনের মোটিভেশনাল গল্প, পল্প বা পরামর্শ নিয়ে বিভিন্ন ভাবে ভিডিও বানাতে পারেন। এই ধরনের ভিডিও গুলো একটু ভিন্ন যে কারণে মানুষের চাহিদা থাকে।

Gaming: আপনি কি গেম খেলতে ভালবাসেন তাহালে বিভিন্ন গেম খেলার সময় রেকার্ড করে আপলোড করতে পারেন। বর্তমানে গেমিং ভিডিও গুলো মানুষরা অনেক পছন্দ করে।

Educational: পড়াশোনা এবং শিক্ষার সাথে জড়িত বিষয়ে ভিডিও তৈরি করতে পারেন। কারন, সবাই এখন ঘরে বসে ক্লাস করতে পছন্দ করে।

আপনি যে বিষয়ে সিলেক্ট করে কাজ করবেন না কেন আপনাকে ধৈর্য ধরে মন দিয়ে কাজ করতে হবে। মনে রাখবেন একদিনে কেউ সফলতা পায় না। এজন্য আপনি যদি নিজেকে সফল ইউটিউবার হিসাকে দেখতে চান, তাহালে সঠিক ভাবে এবং নিয়ম মেনে কাজ করতে থাকুন।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করতে কম সময় লাগবে?

আসলে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে কত সময় লাগবে সেটা সঠিক ভাবে বলা সম্ভব না। কারণ, এটা সম্পর্ন ভাবে নির্ভর করবে আপনার কাজের উপর।

আপনি যদি নিয়মিত ভাবে ভিডিও আপলোড করেন এবং মানুষরা আপনার তৈরি করা ভিডিও দেখে যদি ভালো পায় তাহালে ৫ থেকে ৬ মাসের মধ্যে Google AdSense এর জন্য আবেদন (apply) করার সুযোগ হয়ে যাবে।

এমনিতে, ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওতে ভালো পরিমানে ভিউস, সাবস্ক্রইবার এবং ইনকাম পেতে প্রায় ১ বছরের মতো সময় লেগে যাবে। তবে, আপনার ভিডিও যদি কোনো ভাবে ভাইরাল হয়ে যায় তাহালে আরো কম সময় লাগবে।

আজকে আমরা কি শিখলাম

আশাকরি আমি আপনাদের সম্পর্ন বিষয়ে বুঝাতে পারছি কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আমার লেখা এই আর্টিকেল ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করার উপায় (How to earn money form YouTube) যদি আপনার কাছে ভালো লাগে তাহালে শেয়ার করবেন এবং এই টফিক সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকে নিচে কমেন্টে জানান।

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap