ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয় (কত Views এ কত টাকা)

0
302
ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়
ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়

আমাদের মধ্যে অনেকে রয়েছেন যাদের মনের প্রশ্ন হলো ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয় বা ইউটিউবে কত ভিউতে কত টাকা দেয় বা YouTube এ কত views কত টাকা। আসলে ১০০ ভিউস হউক বা ১০০০ views মূলত ইউটিউবের কিছু নিয়ম বা প্রক্রিয়া রয়েছে। আর সেই নিয়ম গুলো অনুসারণ করে YouTube গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে আমাদের টাকা দেয়।

এজন্য ইউটিউবের ১০০০ ভিউতে কত টাকা আয় করা যাবে বা আমরা YouTube এ কত ভিউতে কত টাকা আয় করতে পারবো সেটা একমাএ তখন বুঝতে পারবো যখন ইউটিউব এর টাকা দেওয়ার প্রক্রিয়া সম্পর্কে আমরা জানবো। (how many views to make money on youtube)

এতে আপনি পরিস্কার ভাবে বুঝতে পারবেন ইউটিউব কত ভিউস থেকে কত টাকা আপনি আয় করতে পারবেন। আপনি ১০০০ ভিউস থেকে কখনো কখনো ৫ ডলার ও আয় করতে পারবেন আবার কখনো কখনো ১ ডলার ও আয় করতে পারবেন না।

আবার হয়তো ৮০০ ভিউততে ৩ থেকে ৪ ডলার আয় করতে পারবেন কিন্ত আবার ৮০০০ ভিউতে ২ ডলার ও আয় করতে পারবেন না। তাই YouTube থেকে আমরা কত টাকা আয় করতে পারবো সেটা একমাএ YouTube এর টাকা দেওয়ার প্রক্রিয়ার উপর নির্ভর। আর সেগুলোর ব্যাপারে আমি বলবো।

ইউটিউবে কত ভিউতে কত টাকা আয় করতে পারবেন?

আপনারা হয়তো এমন অনেক আর্টিকেল পড়েছেন বা ইউটিউবে ভিডিও দেখেছেন যেখানে বলা হয়েছে, ১০০০ ভিউ এ ২ থেকে ৩ ডলার পেয়ে যাবেন। আবার অনেকে বলে কম ট্রাফিক বা ভিউতে অনেক টাকা আয় করে নিতে পারবো।

এখন আপনি যদি একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করার কথা চিন্তা করছেন এবং এটাই জানতে চাচ্ছেন যে, YouTube থেকে কত টাকা আয় করতে পারবেন, তবে মনে রাখবেন এই প্রশ্নের সহজ কোনো উত্তর নেই।

মনে রাখবেন, YouTube অনলাইন টাকা আয় করা অনেক সহজ ও লাভজনক উপায় যার মাধ্যমে অনেকে মাসে হাজার হাজার ডলার আয় করছে। আপনিও ইউটিউবকে নিজের ক্যারিয়ার বানিয়ে বা YouTube কে  নিজের বিসনেস (business) বানিয়ে তার থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

তবে, এতে আপনাকে আকর্ষণীয় ভিডিও তৈরি করতে হবে এবং YouTube ভিডিও SEO এর উপর ধ্যান দিতে হবে এবং মন দিয়ে ধৈর্য ধরে কাজ করতে হবে। কারণ এতে সফল হতে আপনার অনেক সময় লাগতে পারে।

আপনি যত ভালো ভালো এবং আকর্ষণীয় ভিডিও নিজের ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করবেন ততটা ধীরে ধীরে আপনার চ্যানেলের ভিডিও গুলোতে ভিউস (views) বাড়তে থাকবে।

আস্তে আস্তে এমন সময় চলে আসবে যখন আপনার YouTube channel এ অনেক ভিডিও এবং সাবস্ক্রইবার (subscriber) হয়ে যাবে। আর তখন নিচের ভিডিওতে আশা ভিউস এর দ্বারা টাকা আয় করতে পারবেন।

আপনাকে ইউটিউব কত টাকা দিবে?

১০০০ ভিউ আসলো অনেক কম, যদি আপনি ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার কথা চিন্তা করে থাকেন। আমি প্রথম যখন ১০০ ডলার পেমেন্ট পেয়েছিলাম তখন আমার চ্যানেলের মোট ভিউ ছিলো ১.৫ লক্ষ।

তখন আমি নিজে ক্যালকুলেট করে দেখলাম ১০০০ ভিউতে আমি ১ ডলারের ও কম পেয়েছি। কিন্ত অপর দিকে আমার এক বন্ধু সে আমার সাথে কাজ করেছিলো তার ইউটিউব চ্যানেলে সে ১ লক্ষ্য ভিউতে ১৫০ ডলার আয় করেছে। শেষে দেখা গেছে সে ১০০০ view তে ১.৫ ডলার আয় করেছে।

এখানে আপনারা লক্ষ্য করেছেন যে আমার বন্ধু আমার চেয়ে কম views দিয়ে আমার থেকে বেশি ডলার বা টাকা আয় করেছে। এবার হয়তো আপনারা পরিস্কার বুঝতে পারছেন ইউটিউব কত ভিউতে কত টাকা হবে সেটা fixed না।

এজন্য এটার জন্য কেউ নিদিষ্ট করে বলতে পারবে না। কারণ ভিউ (views) এর উপর নির্ভর করে ইউটিউব কখনো টাকা দেয় না। YouTube টাকা দেয় অনেক বিষয় গুলোর উপর চিন্তা করে। আর সেই বিষয় গুলো জানা আমাদের অবশ্যই জরুরি।

বর্তমান সময়ে আপনারা ১০০০ ভিউতে ১ থেকে ৩ ডলার আয় করতে পারবেন যদি এর সহজ উত্তর জানতে চান। তবে, ইউটিউব কতটা ভিউতে কত টাকা দিতে সেটা বলা সহজ না।

তবে, আপনি যদি ইউটিউবের টাকা দেওয়া প্রক্রিয়াটা বুঝতে পারেন তাহালে অনেক কম views তে অনেক বেশি পরিমানে টাকা আয় করার জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন। এবং তার সাথে এটাও পরিস্কার ভাবে বুঝতে পারবেন YouTube থেকে কখন বেশি টাকা আয় এবং কখন কম টাকা আয় হবে।

এবার আপনি যদি জানতে চান, “ইউটিউব কত view তে কত টাকা দেয়? প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা পাবো? ইউটিউব থেকে কত টাকা আয় করা যাবে? YouTube কত টাকা দেয়?” এই সকল প্রক্রিয়ার উত্তর জানতে নিচের লেখা গুলো মন দিয়ে পডুন।

YouTube আমাদের কিভাবে টাকা দেয়? (How to YouTube pays)

আপনারা যদি না জানেন তাহালে জেনে নিন YouTube চ্যানেল থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে গুগল এডসেন্সের। মানে, যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেলে অনেক ভিউ এবং সাবস্ক্রইবার হয়ে যাবে তখন google AdSense এর জন্য আবেদন করতে হবে।

তারপরে আপনার ইউটিউব ভিডিওতে AdSense এর দ্বারা বিজ্ঞাপন দেখানো হবে। আর এই বিজ্ঞাপন দেখানোর জন্য ইউটিউব আমাদের টাকা বা ডলার দেয়। তাহালে বুঝা যায় YouTube আমাদের টাকা দেয় না।

আমরা যখন YouTube নিজের তৈরি করা ভিডিও গুলো আপলোড করে গুগল এডসেন্সের বিজ্ঞাপন লাগিয়ে এডসেন্স দ্বারা টাকা আয় করার সুযোগ পায়। তাহালে আমরা বুঝলাম এখানে ইউটিউবের কোনো হাত নেই।

তবে, YouTube এবং AdSense দুইটাই Google এর সার্ভিস বা প্রডাক্ট এবং দুইটার কাজ আলদা আলদা। YouTube আমাদের তাদের ওয়েবসাইটে ফ্রিতে ভিডিও আপলোড করার সুযোগ দেয়। এবং ঔ ভিডিও গুলোতে লক্ষ লক্ষ ভিজিটর্স পাওয়ার সুযোগ পাই।

আর ভিডিও গুলোতে এডসেন্স বিভিন্ন কোম্পনির বিজ্ঞাপন লাগিয়ে আমাদের টাকা আয় করার সুযোগ দেয়। এজন্য ইউটিউব থেকে কত টাকা আয় করবেন সেটা সম্পর্ন নির্ভর করবে Google AdSense এর উপর। কারণ এডসেন্স বিজ্ঞাপন দেখানোর বদলে আপনাকে টাকা দেবে।

আর এডসেন্স আপনাকে কত টাকা দিবে কত ভিউতে সেটা সম্পর্ন ভাবে নির্ভর করবে এডসেন্স এর উপর। এখানে ইউটিউবের কিছুই করার নেই।

Google AdSense আমাদের কি হিসাবে টাকা দেয়? এবং কখন কত টাকা দিবে

গুগল এডসেন্স (ইউটিউব) আমাদের বিশেষ করে ৫ টি জিনিসের উপর নির্ভর করে টাকা বা ডলার দেয়।

এই ৫ টি জিনিস হলো,

  • এড ভিউ (বিজ্ঞাপন দেখানোর সংখ্যা)
  • CPC কত হচ্ছে
  • CPM কত হচ্ছে
  • কীওয়ার্ড (Keyword)
  • Traffic country

এড (বিজ্ঞাপন) কতবার ভিউ হচ্ছে –

ইউটিউব থেকে আয় করা সম্পর্ন নির্ভর করে আপনার ভিডিওতে দেখানো বিজ্ঞাপনে কতটি ভিউ হয়েছে সেটার উপর। মানে ভিডিওতে বিজ্ঞাপন কতবার দেখানো হচ্ছে বা বিজ্ঞাপন দেখানো হচ্ছে কি না।

মনে রাখবেন, কেবল ভিডিও গুলোতে view হলে হবে না। আপনাকে বিজ্ঞাপনে ভিউ হলে টাকা আয় করতে পারবেন। তবে, মনে রাখবেন এডসেন্স আপনার প্রতিটা ভিডিওতে কিন্ত বিজ্ঞাপন (ads) দেখাবে না।

সহজ ভাবে বললে, আপনারা কোনো ভিডিওতে ১০ জন মানুষ দেখবা বা ১০ টা ভিউ হয়েছে কিন্ত এডসেন্স ১০ জনকে এড (ads) দেখাতে নাও পারে। হয়তো ১০ জনের মধ্যে ৫ জনকে এড দেখাতে পারে, আবার ১০ জনের মধ্যে ৫ জনকে ও এড দেখাতে পারে। এটা সম্পর্ন নির্ভর করে এডসেন্সের উপর।

ভিজিটরর্সদের ভিডিওতে কম বিজ্ঞাপন দেখানো মানে আপনার ইনকাম কম হওয়া আর ভিজিটরদের বেশি ভিডিওতে বেশি বিজ্ঞাপন দেখানো মানে আপনার বেশি টাকা আয় হওয়া। এখানে আপনার নিজের কিছুই করার নেই। 

যে কারণে আপনি ১০০০ ভিউতে ১ ডলার পাচ্ছেন আবার কেউ ১০০০ ভিউতে ২ থেকে ৩ ডলার পাচ্ছে। তাহালে আশাকরি বিষয়টা সহজে বুঝতে পারছেন।

বিজ্ঞাপন কত CPM পাচ্ছেন –

আসলে CPM মানে হলো cost per mille (1000 views), কি বুঝলেন না? সহজ ভাবে বললে CPM মানে হলো আপনার ইউটিউব ভিডিওতে প্রতি ১০০০ এড ভিউতে এডসেন্স বা বিজ্ঞাপন রা কত টাকা দিচ্ছে । এখানে কিন্ত আমি ভিডিও ভিউ হওয়ার কথা বলিনি।

এখানে আমি বলেছি যখন আপনার ভিডিও মানুষা দেখে তখন কত বার এড (ads)দেখানো হয়। আর এই বিজ্ঞাপনের সংখ্যা যখন ১০০০ এড ভিউ হয়ে যাবে তখন ইউটিউব আপনাকে কত টাকা দিচ্ছে। এখানে CPM অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে।

যেমন-

  1. আপনার ভিডিও দেখা মানুষরা বিজ্ঞাপন সম্পর্ন দেখছে কি না।
  2. শুধু বিজ্ঞাপন দেখছে নাকি বিজ্ঞাপন ক্লিক করছে।
  3. বিজ্ঞাপন অল্প দেখে SKIP করে দিচ্ছে না তো।
  4. যে বিজ্ঞাপন দেখছে সেটার মূল্য কেমন।
  5. ভিডিওতে দেখানো বিজ্ঞাপন কোন দেশের মানুষরা দেখছে।

উপরের সকল বিষয়ের উপর নির্ভর করে ভিডিওতে বিজ্ঞাপনের CPM দেওয়া হয়। আপনার CPM যত ভালো হবে ততো বেশি ১০০০ ভিউতে আয় করার সম্ভবনা বেশি থাকবে।

বিজ্ঞাপন কত CPC পাচ্ছেন –

CPM এর মতো ইউটিউব ভিডিও থেকে কত টাকা আয় করবেন সেটা সম্পর্ন নির্ভর করবে CPC এর উপরে। CPC মানে হলো Cost Per Click. মানে আপনার ভিডিওতে দেখানো বিজ্ঞাপনে কত জন ক্লিক করছে এবং সেই ক্লিক গুলোতে এডসেন্স কত করে দিচ্ছে।

অনেকে প্রতি এড ক্লিকে $০.২ থেকে $০.৭ বা তার বেশি পান। যদি আপনি প্রতিটা ads এ $০.৩ করে পান তাহালে মোট ১০০০ এড ক্লিক হয় তাহালে $৩০০ ডলার হবে মানে প্রায় ২৫০০০ টাকার মতো।আর যদি $.০১ করে ক্লিকে পান তাহালে মোট ১০০০ ক্লিকে পাবেন $১০০ ডলার মানে ৮০০০ টাকার একটু বেশি।

তাহালে বুঝতে পারলেন ভিডিওতে দেখানো বিজ্ঞাপনের এড ক্লিকে যত টাকা করে পাবেন তার উপর নির্ভর করে মোট ইনকাম বেশি বা কম হবে। এজন্য ১০০০ এড ভিউতে কত টাকা করে পাবেন সেটা সম্পর্ন নির্ভর করবে ভিডিওতে দেখানো বিজ্ঞাপনে এড ক্লিক প্রতি কত করে পাচ্ছেন।

ভিডিওতে লাভজনক কীওয়ার্ড (keyword) ব্যবহার করুন

আপনার তৈরি করা ভিডিওর কীওয়ার্ড, টপিক, বা বিষয় এডসেন্স এর ইনকামের উপর প্রভাব ফেলতে পারে। মনে রাখতে হবে এডসেন্স যে বিজ্ঞাপন গুলো দেখায় সেগুলো বেশি ভাগ ভিডিও কীওয়ার্ড এর উপর থাকে।

উদাহরণ,

মনে করুন আপনি ডোমেইন নিয়ে একটি ভিডিও তৈরি করেছেন। তাহালে এডসেন্স ডোমেইন নিয়ে যে বিজ্ঞাপন রয়েছে সেটা আপনার ভিডিওতে দেখাবে। মনে রাখবেন, আলদা আলদা বিজ্ঞাপনের জন্য AdSense আলদা আলদা CPC দিয়ে থাকে।

বেশি CPC (Cost Per Click) পাওয়ার জন্য আপনি Google keyword planner টুল সম্পর্ন ফ্রিতে ব্যবহার করে বেশি সার্চ হওয়া এবং বেশি CPC থাকা কীওয়ার্ড খুঁজে বের করে ভিডিও তৈরি করুন। যার ফলে আপনার ভিডিওতে দামি বিজ্ঞাপন (Ads) ব্যবহার করা হবে এবং আপনার ইনকাম বৃদ্ধি পাবে।

কোন দেশ থেকে ভিউ পাচ্ছেন? – Traffic country

ইউটিউব ভিডিওতে Google AdSense আপনাকে কত ভিউতে কত টাকা দিবে সেটা ৭০% নির্ভর করে আপনার ভিডিওতে কোন দেশের ভিজিটর্স দেখছে বা ভিউ হচ্ছে সেটার উপর। এখানে আমাদের কিছুই করার নেই। 

তবে, যদি পারেন তাহালে সব সময় চেষ্টা করবেন যাতে আপনার ভিডিওতে US, UK, Germany, New Zealand, Canada, Australia থেকে ভিজিটর্স নিয়ে আসতে। কারণ আমি যে দেশ গুলোর নাম বললাম সে দেশ গুলো থেকে প্রতি (Ads) বিজ্ঞাপনে প্রায় $০.২৫ থেকে $১ ডলার বা তার বেশি CPC দেয়।

এতে আপনি কম ভিউতে অনেক বেশি টাকা আয় করে নিতে পারবেন। আর আমার জানা মতে বাংলাদেশ, ভারত এবং এশিয়ার দেশ গুলোতে $০.১ থেকে $০.১০ এর মধ্যে দিয়ে থাকে। এজন্য আমাদের এশিয়ার ইউটিউবারদের ইনকাম এত কম।

এজন্য আপনারা সব সময় চেষ্টা করবেন এমন ধরনের ভিডিও তৈরি করতে যেগুলো দেশ বিদেশের বিভিন্ন দেশ থেকে ভিজিটর্স বা ট্রাফিক পাবেন। তাহালে CPC এর মাধ্যমে ১০০০ ভিউতে ভালো পরিমানে ইনকাম করতে পারবেন।

তাহালে আমরা কি বুঝলাম? ইউটিউব কত ভিউতে কত দেয়?

তাহালে শেষে আমরা বুঝতে পারলাম ইউটিউবের থেকে কত টাকা পাবো? ইউটিউব কত টাকা দেয়? কত ads views হলে কত টাকা পাবো? ১০০০ ভিউতে ইউটিউব কত টাকা দেয়? এই সকল প্রশ্নের সহজ উত্তর হলো ইউটিউবের থেকে ইনকাম স্থায়ী না।

অনেক সময় ১০০০ ভিউতে ১ ডলার ও পেতে পারেন আবার অনেক সময় ১০০০ ভিউতে ৪ ডলার ও পেতে পারেন, সেটা সম্পর্ন নির্ভর করছে AdSense CPC এর উপরে। 

আপনি যদি নিয়মিত মন দিয়ে কাজ করতে থাকেন এবং ভালো কোয়ালাটির ভিডিও তৈরি করে পাবলিশ করেন তাহালে ভালো পরিমানে প্রতিমাসে আয় করতে পারবেন।

আমাদের বাংলাদেশ, ভারত এবং এশিয়ার দেশ থেকে প্রতি ১০০০ ভিউতে প্রায় ১ থেকে ৩ ডলার পাওয়ার সম্ভবনা থাকে। কিন্ত এটা অনুমান মাএ। কারণ, ইউটিউব থেকে ইনকাম সবার ক্ষেএে আলদা আলদা হয়।

আজকে আমরা কি শিখলাম

তাহালে বন্ধুরা আজকে আমরা শিখলাম ইউটিউব প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা দেয়। আমার লেখা আর্টিকেল সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকে তাহালে নিচে কমেন্টে জানাতে পারেন। আর সব শেষে আর্টিকেলটি ভালো লাগলে

শেয়ার করুন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে