VPN মানে কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা গুলো

বন্ধুুরা আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা জানবো VPN কি? বা VPN মানে কি (What is VPN) সেই সম্পর্কে। আমাদের ইন্টারনেটের স্পিড যখন কমে যায় বা যখন ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময় আসে তখন আমাদের ভিপিএন (VPN) কথা মনে আসে।

অধিঅংশ মানুষরা VPN কে মনে করে ফ্রী ইন্টারনেট ব্যবহারের মাধ্যম। কিন্ত এই কথাটা মোটোও সত্তি নয়। VPN এর পূর্ণরূপ হলো virtual private network, যার মানে সম্পর্ন ভাবে আলদা।

যারা জানেন VPN মানে কি, তারা এটার ব্যবহার দিয়ে কিছু blocked website এ প্রবেশ করেন। আসলে ইন্টারনেটে এমন কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বন্ধ রয়েছে। সেই ওয়েবসাইট গুলোতে প্রবেশ করার জন্য VPN ব্যবহার করা হয়।

তাছাড়া, বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সংখ্যা যে পরিমানে বৃদ্ধি পেয়েছে, ঠিক সেই ভাবে ইন্টারনেটের মাধ্যমে মানুষের পার্সোনাল ডাটা চুরি করার মতো সাংঘাতিক হ্যাকারদের সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।

এক্ষেত্রে, নিজের সকল পার্সোনাল ডাটা গুলো সম্পর্ন ভাবে সুরক্ষিত রাখার জন্য ভিপিএন এর ব্যবহার করা হচ্ছে প্রচুর ভাবে। ভিপিএন ব্যবহার করার ফলে আপনি এমন স্থানের ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন, সেই স্থান লুকিয়ে দেওয়া হয়। এর বিপরীতে ভিপিএন এর মাধ্যমে অন্য একটি জায়গা দেখানো হয়।

এর ফলে অনলাইনে থাকা বড় বড় হ্যাকাররা আপনার সঠিক লোকেশন (location) খুঁজে পায় না। যার ফলে তারা নেটওয়ার্ক হ্যাক করতে পারে না এবং আপনার পার্সোনাল তথ্য চুরি করতে পারে না।

তাই, বর্তমানে ইন্টারনেট দুনিয়াতে নিজেকে সুরক্ষিত রাখার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করাটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তাই আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনাদের বলবো, VPN মানে কি, ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং এর সুবিধা গুলো সম্পর্কে।

VPN কি? বা VPN মানে কি (What is VPN)

VPN হলো এমন একটি সুরক্ষিত কানেকশন যার মাধ্যমে আমরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে যেকোনো ডিভাইসকে সুরক্ষিত ভাবে নেটওয়ার্কের সাথে সংযোগ করতে পারি।

ভিপিএন আপনার ব্যবহার করা ইন্টারনেট কানেকশনে অধিক সিকিরিটি (security) এবং privacy যুক্ত করে, যেকোনো public network, private network, open WiFi hotspot connection কে সুরক্ষিত করে।

এতে আপনি নিজের ডিভাইসকে অনলাইন হ্যাকারদের কাছ থেকে বাঁচিয়ে রাখতে পারবেন। বর্তমানে VPN এর ব্যবহার দিনের পর দিন বৃদ্ধি পেয়েছে। VPN এর ব্যবহার করার ফলে আপনার ইন্টারনেট ব্যবহার করা মোবাইল বা কম্পিউটার এর IP address টি পরিবর্তন করে দেওয়া হয়।

আপনার IP address এর জায়গায় অন্য দেশের একটি আই পি দেখানো হয়। এর ফলে আপনি কোন স্থান থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন সেটা খুঁজে পাওয়া যায় না। আপনি যদি paid বা premium সার্ভিস ব্যবহার তাহালে নিজের ইচ্ছা মতো যেকোনো দেশ বা শহর বেঁচে নিতে পারবেন।

উদারহণঃ আমি যদি premium বা paid ভার্সনে ব্যবহার করেন, এবং Australia সিলেক্ট করি, তাহালে যদিও আমি Bangladesh থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করছি কিন্ত আমার বর্তমান location দেখাবে Australia. আর মানুষরা দেখবে আমি অস্ট্রেলিয়া থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করছি।

আশাকরি, সহজে বুঝতে পারছেন VPN কি বা VPN এর কাজ কি সেটা বুঝতে পারছেন। এবার চলুন নিচে থেকে জেনে আসি ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম সেটা জেসে আসি।

ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম মোবাইল বা কম্পিউটারে

আপনি অনেক সহজে যেকোনো মোবাইলে বা কম্পিউটারে ভিপিএন ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যেভাবে মোবাইলে বা কম্পিউটারে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপস ইনস্টল করে ব্যবহার করেন, ঠিক সেই ভাবে VPN app বা Software ডাউনলোড করতে হবে।

VPN app বা Software গুলো ডাউনলোড করার পরে আপনি তার সার্ভিস গুলো Enable বা On করে দিবেন। এর পর আপনার ইন্টারনেট কানেকশন অটোমেটিক ভাবে ভিপিএন এর সুরক্ষিত নেটওয়ার্ক দ্বারা কানেক্ট হয়ে যাবে।

সেরা ভিপিএন apps এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য

বর্তমানে কম্পিউটার ব্যবহার করার তুলনায় অধিঅংশ মানুষরা এন্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহার করে। তাই আপনার মোবাইলে অবশ্যই একটি VPN application থাকা জরুরি।

তাহালে, চলুন নিচে থেকে এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য ফ্রি মোবাইল VPN এপস এর ব্যাপারে জেসে আসি।

TunnelBear – এই অ্যাপটি প্রতিমাসে ৫০০ MB ডাটা দিয়ে থাকে। আপনারা মোবাইল এবং কম্পিউটার দুইটাই এই সফটওয়্যার ব্যবহার করতে পারবেন।

TurboVPN – এই ভিপিএন অ্যাপটি সম্পর্ন ফ্রি। আপনারা গুগল প্লে স্টোর থেকে সহজে ডাউনলোড করতে পারবেন।

Free VPN monster – এই মোবাইল অ্যাপটি অনেক দ্রুত এবং ফাস্ট। VPN monster সম্পর্ন ফ্রি এবং যেকোনো মোবাইলে সহজে ইনস্টল করে ব্যবহার করতে পারবেন। এই অ্যাপটি google ply store থেকে ৩ লক্ষের বেশি মানুষরা ডাউনলোড করছে।

HotspotShield – মোবাইলের জন্য সব থেকে ভালো এবং জনপ্রিয় VPN app হলো HotspotShield. এখানে আপনি প্রতিদিন ৫০০ MB ডাটা ফ্রি ব্যবহার করতে পারবেন।

সেরা ফ্রি ভিপিএন সফটওয়্যার কম্পিউটারের জন্য

আসলে paid বা premium version গুলো ব্যবহার করা অনেক লাভজনক। কিন্ত আপনারা যেকোনো কম্পিউটারের জন্য অনেক ফ্রি ভিপিএন  সফটওয়্যার অনেক সহজে ব্যবহার করতে পারবেন। যেগুলো দিয়ে আপনি সহজে কাজ করতে পারবেন।

WindScribe – এটা সম্পর্ন ফ্রি একটি সফটওয়্যার। যেখানে আপনি প্রতিদিন ৩৩০ MB ফ্রি ডাটা ব্যবহার করতে পারবেন। মানে প্রতিমাসে আপনাকে ১০ GB ফ্রি ডাটা পেয়ে যাবেন।

Speedify – এই ভিপিএন সফটওয়্যার কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ব্যবহার করে আপনি অনেক দ্রুত ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন। তাছাড়া এখানে আপনাদের প্রতিমাসে ৫ GB করে ফ্রি ডাটা দেওয়া হবে।

Tunnelbear – যারা প্রথম বার ভিপিএন ব্যবহার করবেন তাদের জন্য এটা বেস্ট। কারণ, এই সফটওয়্যার অনেক সহজে ব্যবহার করা যায়। তাছড়া এই সফটওয়্যার থেকে আপনাকে প্রতিমাসে ৫০০ MB ডাটা ফ্রি দেওয়া হবে।

আপনি যদি কম্পিউটার বা ল্যাপটপে দ্রুত ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য ভিপিএন খুঁজছেন তাহালে উপরে দেওয়া সেরা ৩টি থেকে যেকোনো একটি VPN ব্যবহার করতে পারেন।

VPN এর লাভ ও সুবিধা গুলো জানুন

ভিপিএন কেন ব্যবহার করবেন এবং ভিপিএন এর লাভ গুলো কি সেগুলো আমি নিচে এক এক করে বলে দিচ্ছি।

  • আপনি যখন ভিপিএন সার্ভিস এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন তখন আপনার পার্সোনাল তথ্য গুলো সুরক্ষিত থাকবে। যার ফলে হ্যাকারদের নজর থেকে তথ্য গুলো দুরে থাকবে।
  • VPN ব্যবহার করে আমরা আমাদের পরিচয় গোপন রাখতে পারি। মানে আপনি কোন দেশ বা শহর থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন সেটা গোপন রাখতে পারবেন।
  • ভিপিএন ব্যবহার করে আমরা ব্লক ওয়েবসাইট বা অ্যাপস গুলোতে নিজের মোবাইল বা কম্পিউটার ব্যবহার করে প্রবেশ করতে পারবো।
  • আমাদের নিজের IP address পরিবর্তন করে অনেক সহজে অন্য দেশের IP address এ রুপান্তিত করতে পারবো।
  • আপনি যদি প্রিমিয়াম ভিপিএন সার্ভিস ব্যবহার করেন তাহালে ইন্টারনেটের স্পিড বৃদ্ধি পাবে। কিন্ত আপনি যদি ফ্রি ভিপিএন সার্ভিস ব্যবহার করেন তাহালে ইন্টারনেট স্পিড কম হতে পারে।

আশাকরি, সহজে বুঝতে পারছেন VPN এর লাভ কি কি। কিন্ত আপনি যদি কোনো খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে VPN ব্যবহার করেন, তাহালে VPN Company খুব সহজে আপনার IP address বের করতে পারবে। তাই আপনি কখনো কোনো খারাপ উদ্দেশ্যে ভিপিএন ব্যবহার করবেন না।

আজকে আমরা কি শিখলাম

তাহালে, বন্ধুরা আজকে আমরা জানলাম VPN মানে কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম গুলো সম্পর্কে বিস্তরিত। আমার লেখা what is VPN আর্টিকেল সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকে তাহালে নিচে কমেন্টে জানান। এবং ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

4 thoughts on “VPN মানে কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা গুলো”

Leave a Comment

Share via
Copy link
Powered by Social Snap