ফাইভার কি? Fiverr থেকে টাকা আয় করার উপায়

আজকে আমি আপনাদের সাথে বলবো ফাইভার কি? Fiverr থেকে টাকা আয় করার উপায় সম্পর্কে। অনলাইন ইনকাম করার অনেক গুলো উপায় আছে। যার মধ্যে ফাইভার অন্যতম। এক কথায় বলতে গেলে অনলাইন ইনকাম করার জনপ্রিয় উপায় হলো ফাইভারFiverr হলো এমন একটি প্লাটফর্ম যার মাধ্যমে আপনি নানা ধরনের কাজ করে টাকা আয় করতে পারবেন। (ফাইভার টিউটোরিয়াল)

এমন অনেক ফ্রিল্যান্সার আছে যারা ঘরে বসে fiverr থেকে প্রতিমাসে হাজার হাজার টাকা আয় করছে। এখন হয়তো আপনিও ভাবছেন ফাইভার থেকে আয় করার কথা। কিন্ত কিভাবে কি করতে হবে বুঝতে পারছেন না। চিন্তা করবেন না কারণ এই আর্টিকেলে Fiverr সম্পর্কে সকল তথ্য দিবে। তাহালে চলুন প্রথমে জেনে আসি fiverr marketplace কি (about of fiverr in bangla tutorial)

ফাইভার কি (What is fiverr in bangla)

fiverr হলো এমন একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেস যেখান থেকে বিভিন্ন রকমের freelance service প্রদান করা হয়। আবার ফাইভারকে একটি ওয়েবসাইট ও বলা যায়। যেখান থেকে ফ্রিল্যান্সাররা তাদের বিভিন্ন ধরনের কাজ বা ক্লায়েন্ট খুঁজতে পারে। তাছাড়া একজন কাস্টমার বিভিন্ন রকমের কাজ করানোর জন্য fiverr platform ব্যবহার করতে পারে। এক কথায় এখানে বিভিন্ন ধরনের কাজ (service) কেনা বেচা করা হয়।

এ ধরণের online marketplace গুলোতে Graphic design & art, web design, logo design, business, programming & development, writing, video editing ইত্যাদি কাজ ক্রয় বিক্রয় করা হয়। তাহালে বুঝতে পারছেন Fiverr কি? এবং fiverr marketplace কি?

এছাড়া fiverr marketplace এর মতো আরো অনেক অনলাইন মার্কেটপ্লেস রয়েছে। আর সব গুলো মার্কেটপ্লেসে একই করম কাজ করে। যেমন

  1. Fiverr.com
  2. Freelancer.com
  3. upwork.com
  4. guru.com

এছাড়া আরো অনেক মার্কেটপ্লেস রয়েছে। যেখানে Fiverr এর নিয়মে কাজ করা হয়ে থাকে।

Fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়?

fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায় এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়া অনেক কঠিন। কারণ এখানে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ আসে কাজ করানোর জন্য। আবার হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার আসে কাজ করে দেওয়ার জন্য। তবে, এখানে বেশি সংখ্যক যে কাজ গুলো পাওয়া যায় সেগুলো নিচে উল্লেখ্য করছি।

  • লোগো ডিজাইন এর কাজ
  • ওয়েব ডিজাইন এর কাজ
  • আর্টিকেল লেখার কাজ
  • ভিডিও এডিটিং এর কাজ
  • ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ
  • এসইও এর কাজ
  • এন্ড্রয়েড অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট এর কাজ
  • ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট অপটিমাইজেশন কাজ
  • গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজ
  • ওয়েবসাইট তৈরি করার কাজ

এছাড়া আরো নানা ধরনের কাজ আপনার ঘরে বসে এই মার্কেটপ্লেসে পেয়ে যাবেন। তাহালে জানতে পারলেন ফাইভারে কি কি কাজ পাওয়া যায়। এই সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে Fiverr website এ যান।

ফাইবারে কাজ করার নিয়ম

ভাইবারে কাজ করতে হলে আপনাকে প্রথমে ফাইভার একাউন্ট খুলতে হবে। এখানে প্রশ্ন হলো  “ফাইভারে কাজ করার নিয়ম” কি? তাহালে সহজ উত্তর হলো।

(১) প্রথমে একজন Freelancer বিভিন্ন রকমের কাজ করার জন্য ফাইবার একাউন্ট রেজিস্টার করে।

(২) এরপরে ফ্রিল্যান্সাররা যে কাজ গুলো ক্লায়ন্টের করে দিতে পারবে সেগুলো Fiverr marketplace এ ফাইভার গিগ (Fiverr Gig) বা ফাইভার গিগ মার্কেটিং করে। অনেকে জানেন না ফাইভার গিগ কি? ফ্রিল্যান্সাররা যে কাজ গুলো পাবলিশ করে সেগুলোকে গিগ বলে।

(৩) যে সকল Freelancer fiverr gig sell করে তাদেরকে বলে Fiverr seller.

(৪) এবার বিভিন্ন কোম্পানি কাজ করানোর জন্য ফাইবারে আসেন এবং গিগ অনুসারে সার্ভিস খুঁজেন।

(৫) এরপরে, নিজের কাজ করানোর জন্য freelancer খুঁজার পরে নিচের তথ্য গুলো দেখেন।

যথা,

  • ফ্রিল্যান্সারের অভিগতা (Experience)।
  • সে এর আগে কোনো কাজ করেছে কি না।
  • ফ্রিল্যান্সারের portfolio website দেখে নেওয়া।
  • অন্যরা তার বিয়ষে কি বলেছে সেটা দেখে নেওয়া।
  • শেষে কাজটি করার জন্য কত টাকা নেওয়া হবে।

সবকিছু দেখে সার্ভিস অর্ডার করা হয়। মনে রাখবেন, Fiverr এ কাজ করে দেওয়া জন্য আগে fiverr কে সম্পর্ন টাকা পরিশোধ (payment) করতে হবে। এখানে কোনো কাজ করানোর জন্য সর্বনিম্ন 5$ ডলার পেমেন্ট করতে হবে। freelancer কাজ সম্পর্ন করে জমা দেওয়া পরে fiverr থেকে পেমেন্ট পেয়ে যাবে। এর জন্য fiverr আলদা টাকা $ নিয়ে থাকে।

ফাইভার (Fiverr) থেকে টাকা আয় করার উপায়

(১) মনে করুন, আপনি যেকোনো একটি কাজ খুব ভালো ভাবে পারেন। যেমন- ডিজিটাল মার্কেটিং, লোগো ডিজাইন, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, ভিডিও এডিটিং, ওয়েব ডিজাইন ইত্যাদি।

(২) এবার ফাইবার একাউন্ট খোলার নিয়ম জেনে Fiverr account তৈরি করুন।

  • অবশ্যই পড়ুন – কিভাবে ফাইভারে একাউন্ট খুলতে হয়

(৩) একাউন্ট খোলার পরে নিজের প্রফাইল ছবি সহ সকল ইনফরমেশন দিন।

(৪) এবার আপনাকে ফাইভার গিগ তৈরি করতে হবে। Gig কত টাকায় বিক্রয় করবেন সেটা সেট করে দিন।

(৫) কোনো কোম্পানি যখন আপনার গিগ থেকে কাজ দিবে তখন নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ করে জমা দিতে হবে। কাজের বিনিময়ে আপনি টাকা পাবেন।

(৬) মনে রাখবেন, প্রতিটা কাজ ক্লায়ন্ট অর্ডার করলে সাথে সাথে fiverr টাকা নিয়ে নেয়। এজন্য আপনি কাজ শেষ করে জমা দিলে নিশ্চয়তা টাকা পেয়ে যাবেন।

এভাবে Fiverr account খুলে নিজের জানা কাজ গুলে করে Fiverr থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। অনেক ফ্রিল্যান্সাররা নিজের দক্ষতা দিয়ে fiverr এর মতো অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করে সফল ফ্রিল্যান্সার হয়েছে।

আজকে আমরা কি শিখলাম

তাহালে বন্ধুরা, আজকে আমরা শিখলাম Fiverr কি? কিভাবে ফাইভার থেকে টাকা আয় করা যায়। fiverr এ কি কি কাজ পাওয়া যায়। আমি এই আর্টিকেলে fiverr সম্পর্কে সম্পর্ন তথ্য তুলে ধরেছি। তাছাড়া Fiverr সম্পর্কে যদি কোনো প্রশ্ন থাকে তাহালে নিচে কমেন্টে জানাবেন। আমি দ্রুত উত্তর দিবো।

About খালিদ হাসান সুজন

মোঃ খালিদ হাসান সুজন একজন ব্লগার এবং লেখক! তিনি প্রযুক্তি ব্লগার হিসেবে পরিচিত, যিনি "সফল ফ্রিল্যান্সার" এবং "প্রযুক্তি ডটকম" প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি ব্লগিং সম্পর্কে অনেক উৎসাহীত

3 thoughts on “ফাইভার কি? Fiverr থেকে টাকা আয় করার উপায়”

Leave a Comment

0 Shares
Share via
Copy link
Powered by Social Snap